শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ মে, ২০১৯ ০৯:৪১

২০২৩ সালের বিশ্বকাপ খেলতে চান ডি' ভিলিয়ার্স, তবে...!

অনলাইন ডেস্ক

২০২৩ সালের বিশ্বকাপ খেলতে চান ডি' ভিলিয়ার্স, তবে...!
ফাইল ছবি

দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স জানালেন, ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলতে চেয়েছিলেন তিনিও। কিন্তু নিজের দেশে অদ্ভুত এক সমালোচনার কারণে নিজেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে গুটিয়ে নিয়েছিলেন ২০১৮ সালেই। 

ইউটিউবে ‘‌ব্রেকফাস্ট উইথ চ্যাম্পিয়ন্স’‌ শিরোনাম অনুষ্ঠানে খোলামেলা সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে ডি‌ভিলিয়ার্স বলেছেন, "‌২০২৩ সালে আমার বয়স হবে ৩৯। যদি ধোনি ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলে, তাহলে আমিও খেলব। অবশ্য যদি সত্যিকারের ভাল ফর্মে থাকি। কে বলতে পারে আমি থাকব না?‌ আসলে, ওই যে বললাম, অদ্ভুত এক পরিস্থিতিতে আমাকে ক্রিকেট মাঠ থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল। "

তিনি জানান, "অত্যন্ত স্পর্শকাতর সিদ্ধান্ত। ক্রিকেট জীবনের শেষ ৩ বছরে আমার সম্পর্কে বলা হচ্ছিল যে, আমি যখন খুশি খেলি, আবার যখন খুশি নিজেকে গুটিয়ে নিই। এই ধরনের সমালোচনা ভাল লাগছিল না। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম খেলা ছাড়ার। আমি বলতেই পারতাম বিশ্বকাপ খেলব। কিন্তু তখন আবার ওই সমালোচনার ঢেউ ফিরে আসত। আসলে একটি পাউরুটির টুকরোর দুদিকে তো আর মাখন লাগানো যায় না। নিজেকেই সিদ্ধান্ত নিতে হয়, পাউরুটির কোন অংশটা শুকনো থাকবে। এই সমালোচনার হাত থেকে রক্ষার জন্যই খেলা ছেড়ে দিলাম। এছাড়াও আরও কয়েকটি কারণ রয়েছে। যখন খেলতাম, তখন কখনও নিজের কথা ভাবিনি। শুধুই দলের কথা ভেবেছিলাম। এই প্রথম নিজের জন্য সিদ্ধান্ত নিতে হল।" 

একই সঙ্গে ডি‌ভিলিয়ার্স বলেছেন, "টানা ১৫ বছর খেলেছি দেশের হয়ে। আন্তর্জাতিক জগতে ঘোরাফেরা করতে গিয়ে ক্লান্ত লাগছিল। ক্রিকেট জীবন ব্যস্ততার, যন্ত্রণারও বটে। সারাক্ষণ একজন ক্রিকেটারকে চাপের মধ্যে থাকতে হয়, যা কিনা ভেতরে ভেতরে ক্ষয়ের ক্ষত তৈরি করে। আর যদি কেউ অধিনায়ক হয়, তাহলে তাকে সারাক্ষণ অনেক বেশি যন্ত্রণা হজম করে খেলতে হয়। এর ফলে পারিবারিক জীবনে ঝড়ঝাপ্টা আসে। যে সব কারণে হঠাৎ করে খেলা ছেড়ে দিলাম, তার মধ্যে পরিবারের ব্যাপারটাও থাকবে।"‌

 

বিডি-প্রতিদিন/তাফসীর


আপনার মন্তব্য