Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫৬

উপজেলা নির্বাচন

ইসির সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ

উপজেলা নির্বাচন

সংসদ নির্বাচনের ডামাডোল শেষ হতে না হতেই শুরু হতে চলেছে উপজেলা নির্বাচনের তোড়জোড়। আগামী মার্চেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আয়োজনের পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে নির্বাচন কমিশন। এ উদ্দেশ্যে চলতি মাসে কিংবা ফেব্রুয়ারির শুরুর দিকেই তফসিল ঘোষণার সম্ভাব্যতা বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে। আইন অনুযায়ী, কোনো উপজেলা পরিষদের মেয়াদপূর্তির আগের ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। প্রথমবারের মতো এবার দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন হবে। যে কারণে স্থানীয় নির্বাচন হলেও উপজেলা নির্বাচনেও জাতীয় নির্বাচনের আবহ থাকবে। উপজেলা নির্বাচন করার ক্ষেত্রে জুতসই সময় বেছে নিতে চাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। যেহেতু ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি ও এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা সেহেতু উপজেলা নির্বাচন করার জন্য মার্চকে সঠিক সময় হিসেবে ভাবা হচ্ছে। স্মর্তব্য, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই সপ্তাহ পরই, ১৯ জানুয়ারি উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত মোট ছয় ধাপে ওই নির্বাচন সম্পন্ন হয়। সে সময় ছয় ধাপে সম্পন্ন হয় ৪৮৭টি উপজেলার নির্বাচন। এটি ছিল দেশের চতুর্থ উপজেলা নির্বাচন। পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনও হবে কয়েক ধাপে। যেসব উপজেলা পরিষদের মেয়াদ জুলাইয়ে শেষ হচ্ছে সেগুলোর নির্বাচন ৩১ মার্চের মধ্যে শেষ করার কথা ভাবা হচ্ছে। জুলাইয়ের পর যেসব উপজেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে সেগুলোর নির্বাচন পরে সুবিধাজনক সময়ে ঘোষণা করা হবে। ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হয়। ওই বছর নির্বাচন হয় ৪৬০টি উপজেলায়। ১৯৯০ সালে দ্বিতীয়বারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২০০৯ সালে তৃতীয়বারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই বছর ৪৭৫টি উপজেলায় এ নির্বাচন হয়। উপজেলা একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানীয় সরকার। সুষ্ঠুভাবে এ নির্বাচন অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে আমরা এমনটিই দেখতে চাই। নির্বাচন কমিশনের জন্য এটি চ্যালেঞ্জ বলে বিবেচিত হওয়া উচিত।


আপনার মন্তব্য