শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ মে, ২০২০ ০০:০০

লকডাউনে কেমন কাটল তারকাদের ঈদ

এবার ঈদের আনন্দ হারিয়ে গিয়েছিল করোনায়। ছিল না বাড়তি কোনো আয়োজন। সব তারকাই ঘরে বসে ঈদের দিনটি কাটিয়েছেন। ঈদের আনন্দ বন্দী ছিল লকডাউনে। এই লকডাউনে তারকারা কেমন ঈদ কাটালেন? সেসব খবর জানাচ্ছেন- পান্থ আফজাল

লকডাউনে কেমন কাটল তারকাদের ঈদ
বিদ্যা সিনহা মিম

আজমেরী হক বাঁধন

ঈদ এবার মায়ের বাসায় কাটিয়েছি মেয়েকে নিয়ে। আমার ফ্ল্যাটে তো এখন খুব বেশি থাকা হচ্ছে না। এমনিতেই কাজের লোক নেই। ঈদের দিন মা রান্না করেছে আমার সব পছন্দের খাবার। তবে খাবারগুলো খুবই সিম্পল- পোলাও, গরুর গোশত, মুরগি, লাচ্ছি ও ফিরনি। ঘুম থেকে উঠেছি দেরি করে; বেলা সাড়ে ১১টায়। এরপর একটু তৈরি হয়ে মেয়েকে নিয়ে ছাদে গেলাম, ছবি তুললাম, ফোনে পরিচিত মানুষের খোঁজ-খবর নিলাম আর কিছু কিছু মানুষের সঙ্গে ভিডিও কলে শুভেচ্ছা বিনিময় করলাম। এরপর তো রাতে রাজবাড়ী সার্কেল আয়োজিত লাইভ শো ‘ঈদ আড্ডা’তে ইমন ও সজলের সঙ্গে জম্পেস আড্ডা দিলাম। এই তো আমার ঈদ! এমনিতেই মন ভালো নেই। আশপাশের মানুষের মৃত্যু সংবাদ মনকে ব্যথিত করছে।

 

মোশাররফ করিম

করোনাময় এই দিনে অন্যসব দিনের মতো স্বাভাবিকভাবে ঈদ কাটিয়েছি। দেশের অবস্থা তো ভালো না। তাই কোনো বাড়তি আয়োজন ছিল না। সবাই ঘরের মধ্যেই একসঙ্গে এবারের ঈদ কাটিয়েছি-এটাই অনেক আনন্দের। জুঁই রান্না করেছে সবার জন্য। পরিবারের কিছু কাছের আত্মীয়স্বজন এসেছিল। আরেকটা বিষয়, প্রতিবারের মতো এবার কোনো শুটিংয়ে ব্যস্ততা ছিল না। গৃহবন্দী ঈদ কেটেছে। তবে এটার মধ্যেও আনন্দ রয়েছে। পরিবারের সবাইকে পরিপূর্ণ সময় দিতে পেরেছি।

আবদুন নূর সজল

এই লকডাইনে বাসায় থেকে অন্যরকম একটা ঈদ কাটালাম। আলহামদুলিল্লাহ ভালো কেটেছে! আমার কাছে আরেকটা বিষয় মনে হয়েছে যে, অনেক সময় অনেক কিছু আমরা সেন্স করতে পারি না। কিন্তু ভিন্ন ঈদ যে ভিন্ন আনন্দ হতে পারে, তা এবার বুঝতে পারলাম। আমি ৩ বছর আগের একটা পাঞ্জাবি পরে এবারের ঈদ করেছি। কোনো একটা ঈদের প্রিয় পাঞ্জাবি ছিল সেটি। আমাদের এমন অনেক প্রিয় কাপড় পড়ে রয়েছে। যেগুলো পরাই হয় না। সেগুলো এমনি করে যদি প্রিয় দিনে পরা যায়, সেটির চেয়ে আনন্দের আর কিছু হতে পারে না। এবার সেটি বুঝলাম। আর সারা দিন তো বাসায়। ফোনে কথা বলে, ভিডিও কলে আড্ডা দিয়ে আর ফেসবুকে লাইভ করে এই লকডাইনের ঈদ কাটিয়েছি।

 

পূজা চেরি

এবারের ঈদটা ভিন্নভাবে কাটিয়েছি। বাসায় থেকে ঈদ কাটানো আমার মতো সবারই মনে হয় প্রথম অভিজ্ঞতা। ঘুম থেকে উঠে বিরানি রান্না করেছি। এবারই ইউটিউব দেখে রান্না করেছি। যদিও মা একটু হেল্প করেছে। এর আগেও রান্না করেছিলাম। এরপর নিজেকে একটু সাজিয়েছি। শাড়ি পরেছি। ফোনে, ভিডিও কলে কাছের কিছু মানুষের সঙ্গে আড্ডা দিয়েছি। ফেসবুক লাইভ করেছি। এই তো ঘরে বসেই এবারে ঈদটা কেটে গেছে।

 

মেহজাবীন চৌধুরী

এবারের ঈদ তো সবার মতো বাসায় কেটেছে। কিছু রান্না করা হয়েছে। ইউটিউব থেকে কিছু রান্না শিখেছি। ঈদের দিন সাজগোজ তেমন করে করা হয়নি। আগের জামা পরেছি। আর এবার তো তেমন করে শুটিং ব্যস্ততা ছিল না। সবাইকে সময় দেবার সুযোগ পেয়েছি।

 

মামনুন ইমন

করোনাময় ঈদ এবার সবার কমন পড়ে গেছে! সবার একই রকমভাবে কেটেছে। ঘুম থেকে উঠে বাসায় নামাজ পড়লাম, সেমাই খেলাম। যা যা রান্না হয়েছে সেগুলো খেলাম। আর আমি ফিরনি রান্না করেছিলাম। আমি কিন্তু বাসায় অনেক কাজ করছি। আর বন্ধু, প্রিয়জনদের সঙ্গে ফোনে, ভিডিও কলে আড্ডা দিয়েছি। ফেসবুক লাইভ করেছি রাতে। এভাবে এবারের ঈদ কেটে গেছে।

 

বিদ্যা সিনহা মিম

অনেক দিন থেকে ঘরে বসা। এবারই প্রথম গৃহবন্দী ঈদ করলাম। প্রতিবছর নতুন জামা কেনা হয়। এই ঈদে কেনা হয়নি। ঈদে সাধারণত মা রান্না করে থাকেন। এবার আমিও কিছু রেসিপি রান্না করেছি। ইউটিউবে রান্না শিখেছি। আগে কখনো ঈদের দিন রান্না করিনি। ঈদের দিন দু-তিন পদের সেমাই রান্না করেছি।

 

এফ এস নাইম

করোনার কারণে প্রায় দুইমাসের বেশি সময় ধরে বাসায় আছি। কোনো শুটিং ব্যস্ততা নেই। তবে কিছু পুরনো নাটক প্রচার হয়েছে টিভিতে। এবারের ঈদটা নাদিয়ার সঙ্গে সম্পূর্ণ বাসায় বসে কাটিয়েছি। একটু ছাদেও গিয়েছি দুজনে। প্রতি ঈদে সব সময় ভোরের প্রথম জামাতে নামাজ পড়ে কবর জিয়ারত করতাম। নানির বাসায় যেতাম, আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে দেখা করতাম। এবার কোনোটাই করা হয়নি। সকালে ঘুম থেকে উঠেছি। সবার নিরাপত্তার জন্য বাসায়ই নামাজ পড়েছি। পরিবারের সবার সঙ্গে সকালের নাশতা করেছি।

 

নুসরাত ইমরোজ তিশা

একটি কঠিন সময়ে এবারের ঈদ হলো। লকডাউনে হয়েছে এবারের ঈদ। ঈদে কেনাকাটা ছিল না। ঘরে বসে রান্না করেছি। সবার খোঁজ খবর নিয়েছি ফোনে, ফেসবুকে। ঘরে বসে যেভাবে সাদামাটা ঈদ করা যায়, সেভাবেই করেছি।

 

তাহসান খান

এমন পরিস্থিতি যে আমাদের জীবনে আসবে, তা কখনোই ভাবিনি। নিজেদের সুস্থতার জন্য দূরত্ব বজায় রাখতে হচ্ছে। আমিও তাই এমনভাবে ঈদ উদ্যাপন করেছি। ঘরে বসে। জীবনে এবারই প্রথম ঈদ করেছি বন্ধুবান্ধব আর আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে দেখা না করে। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কথা হয়েছে অনেকের সঙ্গে। ভিডিও কলে কথা বলেছি। এভাবেই কেটে গেছে লকডাইন ঈদ।


আপনার মন্তব্য