শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ এপ্রিল, ২০২১ ২২:৫৩

মিতা হককে নিয়ে বন্যা

শোবিজ প্রতিবেদক

মিতা হককে নিয়ে বন্যা
Google News

বরেণ্য রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী মিতা হক আর নেই। রবিবার ভোর ৬টা ২০ মিনিটে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। একুশে পদকপ্রাপ্ত এই গুণী শিল্পী দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। মাত্র ৫৮ বছর বয়সে তাঁর অকাল প্রস্থানে বিষণœতা নেমেছে সংগীত ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে। তাঁর এই মহাপ্রস্থানে রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী ও সংগঠক রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা বলেন, ‘ভোরে বিষণœ খবরটা শুনলাম। মনটা খারাপ হয়ে গেল। বিহ্বল হয়ে পড়লাম। কারণ, আমার আর মিতার যোগসূত্রটা একই স্থানে। হেঁটেছিও একই পথে। মিতা আর আমার পড়াশোনা একই জায়গায়। শান্তিনিকেতন। বিষয়ও একই, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তাঁকে প্রথমে আমি চিনি ওয়াহিদ ভাইয়ের মেয়ে হিসেবে। সেই শুরু। এরপর তো দেশে ফিরে এলাম। মিতা ব্যস্ত হয়ে গেল রবীন্দ্রসংগীতে। আমিও তাই। সাংগঠনিকভাবে তিনি কাজ করে চললেন। তবে এই জায়গায় আমাদের যোগাযোগটা কম হলো। কারণ মিতা ছায়ানট ও রবীন্দ্র সম্মিলন পরিষদ নিয়ে কাজ করছিলেন। আমি গান ও পরবর্তী সময়ে সংগঠন সুরের ধারা নিয়ে ব্যস্ত হলাম। এরপর বহু কাজ করে গেছেন মিতা। বহু অনুষ্ঠানে আমরা একমঞ্চে দাঁড়িয়েছি শিল্পী হিসেবে। মনে আছে, ২০১৭ সালে চ্যানেল আই রবীন্দ্র উৎসবে তাঁকে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয়। সেখানে আমিও ছিলাম। আজীবন সম্মান জানানোর মতোই ছিলেন তিনি। তাঁর এই অসময়ে চলে যাওয়াটা সত্যিই কষ্টের। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করি।’ মিতা হক অভিনেতা খালেদ খানের স্ত্রী। তাঁর চাচা রবীন্দ্র গবেষক ওয়াহিদুল হক। মেয়ে জয়ীতাও রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী।