Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:০১
আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৪:৩৭

নগ্ন ছবি তুলে ব্ল্যাকমেল করতেই ভাবনাকে শ্লীলতাহানির ছক

অনলাইন ডেস্ক

নগ্ন ছবি তুলে ব্ল্যাকমেল করতেই ভাবনাকে শ্লীলতাহানির ছক

ভারতের মালয়ালম ভাষার অভিনেত্রী ভাবনাকে অপহরণ এবং শ্লীলতাহানি কাণ্ডে উঠে এল একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। ঘটনায় ধৃত তিন অভিযুক্তকে জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে, গোটা ঘটনাই ছিল পূর্বপরিকল্পিত। খবর সংবাদ প্রতিদিনের। 

নায়িকার নগ্ন ছবি তুলে তাকে ব্ল্যাকমেল করার উদ্দেশ্যেই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছিল সাতজনের ওই দল। পুলিশ জানিয়েছে, এর পিছনে এক জনপ্রিয় মালয়ালম অভিনেতা এবং রাজনীতিবিদের দুই ছেলেরও বড় ভূমিকা রয়েছে।

গত শুক্রবার রাতে কোচির রাস্তায় চলন্ত গাড়িতে ভাবনাকে শ্লীলতাহানি করা হয়েছিল বলে অভিযোগ ওঠে। অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, শ্লীলতাহানির পর দুষ্কৃতিকারীরা তার ছবি ও ভিডিও তোলে। পুলিশের কাছে যে তথ্য প্রমাণ এসে পৌঁছেছে, তা থেকে অনুমান করা হচ্ছে, গোটা ঘটনায় এলডিএফ রাজনৈতিক দলের এক নেতার দুই ছেলে এবং ভাবনারই এক সহকর্মী যুক্ত ছিলেন। 

সূত্রের খবর, ওই অভিনেতা এবং তার স্ত্রীর সঙ্গে ভাবনার ভালই সম্পর্ক ছিল। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদের পরিস্থিতি তৈরি হলে ভাবনা অভিনেতার পাশে না দাঁড়িয়ে স্ত্রীর পক্ষ নিয়েছিলেন। আর তাতেই ক্ষুব্ধ হন ওই মালয়ালম তারকা। তারপর থেকেই ভাবনার সঙ্গে অভিনেতার সম্পর্ক খারাপ হতে শুরু করে। 

শোনা যায়, ছবিতে কাজ পেতেও ভাবনার সামনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। তারপর রাজনীতিকে হাতিয়ার করে মালয়ালম ছবির জগতে ঢুকে পড়েন এলডিএফ নেতার দুই ছেলে। সেখানেই অভিনেতার সঙ্গে পরিচয় তাদের। 

ভাবনাকে অপহরণ ও শ্লীলতাহানির জন্য দলের নেতা সুনীল কুমারকে ৫০ লাখ টাকা দেয়া হয়েছিল। আটক হওয়া ব্যক্তিদের একজন জানিয়েছে, দলকে ওই কাজের জন্য ৩০ লাখ টাকা দেবে বলে জানিয়েছিল সুনীল। তবে সুনীলকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। 

সাতজনের বিরুদ্ধে অপহরণ এবং ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে। সাতজনের মধ্যে বাকি চারজনের খোঁজ চালাচ্ছে তদন্তকারী দল।

 

বিডি প্রতিদিন/২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ফারজানা-১২


আপনার মন্তব্য