শিরোনাম
প্রকাশ : ২ জানুয়ারি, ২০২০ ১৯:০১

কলাপাড়ায় খেজুর-তালের গুড়ের বাজার জমজমাট

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:

কলাপাড়ায় খেজুর-তালের গুড়ের বাজার জমজমাট

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় রসের গুড়ের বাজার জমে উঠেছে। কেউ মাটির হাড়িতে খেজুরের গুড় নিয়ে এসেছেন, কেউবা আবার মাটির পাতিলে নিয়ে এসেছেন তালের গুড়। অনেক বিক্রেতা আবার সিলভারের পাতিলে এনেছেন গোলের গুড়। আর ক্রেতারা এসেছেন প্লাষ্টিকের ছোট পাত্র কিংবা ছোট মাটির হাড়ি নিয়ে। 

পৌর শহরের লঞ্চঘাট সংলগ্ন এলাকায় সাপ্তাহিক মঙ্গলবার এ গুড়ের হাট বসে। বেচা-কেনাও চলে হরদমে। শীত মৌসুমে রস ও গুড়ের চাহিদা বেশি থাকে বলে ক্রেতা ও বিক্রেতারা জানিয়েছেন। 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, সারিবদ্ধভাবে পাতিল নিয়ে বসে আছেন গুড় বিক্রেতারা। প্রত্যেকটি পাতিল সোনালি, হালকা লাল, চকচকে ও উজ্জ্বল সাদাটে সুস্বাদু গুড়ে ভর্তি। আবার অনেকের পাতিলে রয়েছে খেজুরের রস। এসব দেখে ক্রেতারা দর-দাম করছেন। প্রতি কেজি খেজুর গুড় বিক্রি হচ্ছে ১শ’ পঞ্চাশ টাকায়, তালের গুড় বিক্রি হচ্ছে ১শ’ টাকায় আর গোলের গুড় বিক্রি হচ্ছে ১শ’ বিশ টাকায়। এবছর উৎপাদন খরচ বেশি হওয়ায় বাজারে গুড়ের পরিমান কম। তবে খেজুর গুড়ের প্রতি ক্রেতাদের বেশি আকর্ষণ লক্ষ করা গেছে। 

স্থানীয় রসের গুড় ব্যবসায়ীরা জানান, মৌসুমের শুরুতেই প্রতি মঙ্গলবার হাটের দিন এ গুড় নিয়ে কলাপাড়ায় পৌর শহরে বিক্রি করতে আসতে হয়। এছাড়া অনেকে বাড়ি থেকে কিনে নিচ্ছেন। 

নীলগঞ্জ থেকে আসা গুড় ব্যবসায়ী নিঠুর হাওলাদার বলেন, রস সংগ্রহ করে তাপালে (টিনের গুলি) করে জাল (গরম করা) দিয়ে তৈরি করা হয় গুড়। কিন্তু জ্বালানির দাম অনেক বেড়ে গেছে। তাই প্রতি কেজি গুড় তৈরিতে খরচ হচ্ছে প্রায় আশি থেকে নব্বই টাকা। কিন্তু ক্রেতারা কম দাম হাকছেন। 

আরেক গুড় ব্যবসায়ী মো. জাহাঙ্গীর হোসোন বলেন, বিশেষ করে এখন খেজুর গাছসহ তাল ও গোলের গাছের সংখ্যা কমে গেছে, তাই গুড়ের সংখ্যাও কম। 

কলাপাড়া ব্যবসায়ী সমিতির কোষাধক্ষ্য মো. ফরিদ উদ্দিন বিপু বলেন, প্রতি শীত মৌসুমে খেজুরসহ বিভিন্ন গাছের গুড় ব্যবসায়ীদের ভিড় জমে গুড় বাজারে। আর এ গুড় কিনতে পার্শ্ববর্তী উপজেলার গুড় ব্যবসায়ীরাও এখানে ভিড় জামায়। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

close