শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪০

হত্যা মামলার আসামি ধরিয়ে দেওয়ার জের

ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, আরেক ভাইয়ের হাত-পা ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, আরেক ভাইয়ের হাত-পা ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

মুলাদী উপজেলার উত্তর বালিয়াতলী গ্রামের আনিস হাওলাদারকে (৪০) ধারালো অস্ত্র এবং রড দিয়ে কুপিয়ে-পিটিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এছাড়া আনিসের বড় ভাই দাদন হাওলাদারকে কুপিয়ে-পিটিয়ে তার দুই পা এবং এক হাত ভেঙে দিয়েছে তারা। নিহত আনিস এবং আহত দাদন একই এলাকার মৃত মোতালেব হোসেন হাওলাদারের ছেলে। শুক্রবার বিকালে এ ঘটনার পর গতকাল নিহতের ভাই শামীম হাওলাদার বাদী হয়ে ৩১ জনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নিহতের স্বজনরা জানান, কয়েক মাস আগে উত্তর বালিয়াতলী এলাকায় রিপন নামের এক ব্যক্তিকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই মামলার আসামি একই এলাকার আলমগীর কবিরাজকে কিছুদিন আগে ধরিয়ে দিতে পুলিশকে সহযোগিতা করে আনিস। সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পায় আলমগীর। তাকে ধরিয়ে দেওয়ার প্রতিশোধ হিসেবে শুক্রবার বিকালে আলমগীর কবিরাজের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত উত্তর বালিয়াতলী গ্রাম থেকে আনিস ও তার বড় ভাই দাদন হাওলাদারকে অপহরণ করে কালকিনির উত্তর খাসেরহাটের একটি নির্জন বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে ধারালো অস্ত্র, লাঠিসোঁটা ও রড দিয়ে কুপিয়ে, পিটিয়ে ও খুঁচিয়ে আনিসকে এবং দাদনকে কুপিয়ে আহত করা ছাড়াও তার দুই পা এবং এক হাত ভেঙে মুমূর্ষু অবস্থায় তাদের ফেলে যায়। স্বজনরা আনিসকে উদ্ধার করে মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে আনিস মারা যায়। এছাড়া দাদনকে ওই রাতেই বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করেন চিকিৎসকরা।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মুলাদী থানার ওসি মতিউর রহমান জানান, এ ঘটনায় নিহতের ভাই শামীম হাওলাদার বাদী হয়ে আলমগীর কবিরাজ, মহসিন, মিন্টু হাওলাদার, ইব্রাহীম হাওলাদার, বাবু সরদারসহ ৩১ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।


আপনার মন্তব্য