শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৫ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ এপ্রিল, ২০১৭ ২৩:৩৯

মাশরাফির অবসর টি-২০ অধিনায়ক সাকিব

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মাশরাফির অবসর টি-২০ অধিনায়ক সাকিব

টি-২০ ক্রিকেটকে গুডবাই জানালেন নড়াইল এক্সপ্রেস মাশরাফি। গতকাল কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টসের সময় অবসরের ঘোষণা দেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। তবে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজের দুটি ম্যাচই খেলবেন তিনি। গতকাল শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম টি-২০তে টস জয়ের পর প্রতিক্রিয়া জানানোর সময় মাশরাফি বলেন, ‘এই টি-২০ সিরিজটি বাংলাদেশের হয়ে আমার শেষ টি-২০ সিরিজ।’ কলম্বোতে গত রাতেই সাকিব আল হাসানকে টি-২০ অধিনায়ক ঘোষণা করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। টি-২০তে মাশরাফির অভিষেক হয়েছিল ২০০৬ সালের ২৩ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে। কালকের ম্যাচের আগে পর্যন্ত ৫২ ম্যাচে ৩৯ উইকেট নিয়েছেন। টি-২০ মাশরাফি খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন না। সে কারণে আহামরি ভালো পারফরম্যান্সও নেই। তবে ২০১২ সালে ২১ জুলাই বেলফাস্টে অনুষ্ঠিত আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচটি নিশ্চয়ই মনে রাখবেন মাশরাফি ভক্তরা। ব্যাটে-বলে কী অসাধারণ জাদুই না দেখিয়েছিলেন। বল হাতে মাত্র ১৯ রান দিয়ে তুলে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। আর ব্যাট হাতে মাত্র ১৩ বলে করেছিলেন ৩০ রান। যার মধ্যে চার চারটি বিশাল ছক্কার মার ছিল। ম্যাচসেরাও হয়েছিলেন মাশরাফি। তবে দলে নড়াইল এক্সপ্রেস কেবল একজন ক্রিকেটার হিসেবে খেলেন না! তিনি একজন মটিভেটর। একজন ক্রিকেটারের ভিতর থেকে কিভাবে ভালো পারফরম্যান্স আদায় করে নেওয়া যায় তা খুব ভালো করেই জানতেন মাশরাফি। সে কারণেই তার নেতৃত্বেই বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতির গ্রাফটা ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। ব্যক্তি হিসেবে মাশরাফি অমায়িক। কিন্তু নীতিতে অটল। সে কারণেই যখন দেখলেন টি-২০তে ঠিকমতো নিজেকে মানিয়ে নিতে পারছেন তাই অবসরের ঘোষণা দিয়ে দিয়েছেন। মাশরাফির এক যুগের টি-২০ ক্যারিয়ারের পরিসমাপ্তি!


আপনার মন্তব্য