শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ জুলাই, ২০১৯ ২৩:৫৮

সারা দেশে মামলা অভিযোগ ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সারা দেশে মামলা অভিযোগ ক্ষোভ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে সংখ্যালঘু নির্যাতনের অভিযোগকারী বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার ৯টি আবেদন করা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা, খুলনা ও সিলেটে দুটি করে, যশোর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও নাটোরে একটি করে আবেদন করা হয়েছে। তবে ঢাকার দুটি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মামলা খারিজ করেছে আদালত। তবে যশোরের মামলা তদন্ত করে ওসিকে ৬ আগস্ট প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এদিকে দেশবিরোধী প্রিয়া সাহার অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সারা দেশের সচেতন দেশপ্রেমিক তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। ঢাকায় মামলার আবেদন করেন আইনজীবী মো. ইব্রাহিম খলিল ও সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। মামলা দুটি খারিজ করে আদালত। সিলেটের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে দুটি আবেদন করেন মহানগর ছাত্রলীগের সদস্য রিমাদ আহমদ রুবেল ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সারোয়ার মাহমুদ। আদালত দুটি আবেদনই খারিজ করে। খুলনা মহানগর হাকিম আদালতে মামলার আবেদন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল ও স্থানীয় মদন কুমার সাহা। আদালত অভিযোগ দুটি বিবেচনাধীন রেখে পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছে। নাটোরের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম মামুনুর রশিদের আদালতে মামলা করেন স্থানীয় সাংবাদিক নাসিম উদ্দিন নাসিম। আদালত শুনানি শেষে সদর থানার ওসিকে তদন্ত করে ৬ আগস্ট প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি গোলাম মোস্তফা কামাল যশোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি কোতোয়ালি আদালতে মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মো. আসাদ উল্লাহ মামলা করেন। প্রিয়া সাহার অভিযোগের পেছনে প্ররোচনা রয়েছে বলে মনে করছেন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’-এর আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রিয়ার বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এ বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত চেয়েছেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ, একুশে  টেলিভিশনের সিইও মেজর জেনারেল (অব.)  মোহাম্মদ আলী শিকদার, কলামিস্ট ড. রমনীমোহন  দেবনাথ, বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতা মিলন ভান্তে প্রমুখ।

করুণা ভান্তে, হিন্দু ধর্মীয় নেতা গোপাল চক্রবর্তী ও আনন্দ চন্দ্র বাউল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বিমান বড়ুয়া, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের পরিচালক ড. উত্তম বড়ুয়া এবং খ্রিস্টান ধর্মীয় নেতা রেভারেন্ড মার্টিন অধিকারী, উইলিয়াম প্রলয় সমাদ্দার ও বিশপ পাল এস সরকার সম্প্রীতি বাংলাদেশের সদস্য সচিব ড. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নিল) প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য