শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:১৬

হলি আর্টিজানের রায় ২৭ নভেম্বর

আট জঙ্গির ফাঁসি চায় রাষ্ট্রপক্ষ

আদালত প্রতিবেদক

আট জঙ্গির ফাঁসি চায় রাষ্ট্রপক্ষ

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলা মামলার রায় আগামী ২৭ নভেম্বর ঘোষণা করা হবে। আসামিপক্ষের টানা চার দিনের যুক্তিতর্ক শেষে গতকাল বিকালে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান রায় ঘোষণার এ তারিখ ধার্য করেন। রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) গোলাম সারওয়ার খান আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। অন্যদিকে চার আসামির আইনজীবী মো. দেলোয়ার হোসেন বলেছেন, তারা ন্যায়বিচার চান। প্রসঙ্গত, এর আগে নৃশংস এই হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত আট জঙ্গির মৃত্যুদন্ড চেয়ে গত ৭ নভেম্বর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করে রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি সাংবাদিকদের বলেন, রায়ের তারিখ ঘোষণার সময় আট আসামি আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। মামলাটিতে রাষ্ট্রপক্ষের ২১১ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১৩ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়। এর আগে আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য দেওয়ার সময় আসামিরা সবাই নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন। অভিযোগপত্রভুক্ত আট আসামি হলেন, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগান, আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ, সোহেল মাহফুজ, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান, হাদিসুর রহমান সাগর, শরিফুল ইসলাম ও মামুনুর রশিদ। উল্লেখ্য, এ হামলার সঙ্গে জড়িত ২১ জনকে শনাক্ত করা হয়েছিল। এর মধ্যে ১৩ জঙ্গি পুলিশের বিভিন্ন জঙ্গিবিরোধী অভিযানে নিহত হয়। বাকি আটজনকে এ মামলায় আসামি করা হয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। তারা অস্ত্রের মুখে দেশি-বিদেশি মানুষদের জিম্মি করে। ওই রাতে অভিযান চালাতে গিয়ে পুলিশের দুই কর্মকর্তা নিহত হন। পরদিন সকালে সেনা কমান্ডোদের অভিযানে পাঁচ জঙ্গিসহ ছয়জন নিহত হন। পরে পুলিশ ১৮ বিদেশিসহ ২০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান একজন রেস্তোরাঁ কর্মী। হামলার আড়াই বছরের মাথায় গত বছরের ২৩ জুলাই আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর