শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ এপ্রিল, ২০২০ ২৩:৪৩

আজ পবিত্র শবেবরাত

ঘরে বসে ইবাদত ও কবরস্থানে না যাওয়ার অনুরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক

আজ পবিত্র শবেবরাত

আজ হিজরি ১৪৪১ সনের ১৪ শাবান বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত পবিত্র শবেবরাত। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা এই পবিত্র রাতটি সৌভাগ্য রজনী হিসেবে পালন করে থাকেন। কিন্তু মানব ইতিহাসের এক ভয়াবহ ক্রান্তিকালে করোনাভাইরাসের দুর্যোগময় পরিস্থিতির মধ্যে এবার মুসলমানদের জীবনে এসেছে এই পবিত্র রজনী। তাই এ বছর সরকারের পক্ষ থেকে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নিজের ও পরিবারের সদস্যদের সুরক্ষার জন্য সবাইকে নিজ নিজ ঘরে বসেই মহান আল্লাহর রহমত, বরকত ও সন্তুষ্টি লাভের আশায় নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকিরসহ বিভিন্ন ইবাদত-বন্দেগির মাধ্যমে রাতটি পালন করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। পাশাপাশি কবর জিয়ারতসহ বিভিন্ন বুজুর্গের মাজার জিয়ারত করা থেকেও বিরত থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে।

পবিত্র হাদিসের বর্ণনামতে, মহিমান্বিত এ রাতে মহান আল্লাহ তাঁর বান্দাদের ভাগ্য নির্ধারণ করেন। তাই ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা এ রাতে মহান আল্লাহর রহমত, বরকত ও সন্তুষ্টি লাভের আশায় নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকিরসহ বিভিন্ন ইবাদত-বন্দেগির মাধ্যমে রাতটি পালন করে থাকেন। এ উপলক্ষে অনেক ধর্মপ্রাণ মানুষ আজ নফল রোজা রেখেছেন। কালও রোজা রাখবেন।

মানব ইতিহাসের ভয়াবহ ব্যাধি নভেল করোনাভাইরাসের কারণে দেশ আজ লকডাউন ও কোয়ারেন্টাইন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তাই সরকার সব ধরনের জনসমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে। সরকারি সব অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে। প্রতি বছর শবেবরাতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে যেসব কর্মসূচি গ্রহণ করা হয় করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার তা গ্রহণ করা হয়নি। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে গতকাল এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্বে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ক্রমে ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করছে। বাংলাদেশেও এর প্রভাব দৃশ্যমান হচ্ছে। বিজ্ঞপ্তিতে এ পরিস্থিতিতে মহিমান্বিত এই রজনীতে নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করে ইবাদত-বন্দেগির সময় ব্যক্তিগত দোয়া ও প্রার্থনা ছাড়াও করোনাভাইরাসের মহামারীর আক্রমণ থেকে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি, মুসলিম উম্মাহ ও বিশ্ববাসীকে সুরক্ষা ও নিরাপদ রাখার বিষয়ে মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষভাবে দোয়া করার জন্য সব ধর্মপ্রাণ মুসলমানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এ ছাড়া দেশের আলেম-ওলামা, পীর-মাশায়েখ, মসজিদের খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, শিক্ষকসহ সব ধর্মপ্রাণ মুসলমানের কাছে এ বিষয়ে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, পবিত্র শবেবরাতে জিয়ারতের জন্য কবরস্থান ও মাজারে অনেক লোকের সমাগম হয়। আবার কবরস্থান ও মাজার এলাকায় অনেক ভিক্ষুক, অসহায়, অসচ্ছল, প্রতিবন্ধী ও রোগাক্রান্ত ব্যক্তি সাহায্যের জন্য সমবেত হয়।

এ ধরনের জনসমাগমের কারণে করোনাভাইরাস ব্যাপকহারে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধকল্পে শবেবরাতে কবর জিয়ারতের উদ্দেশ্যে কবরস্থানে না গিয়ে নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করে মৃত আত্মীয়স্বজনের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করার জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে আহ্বান জানানো হলো। একই সঙ্গে কবরস্থান ও মাজারের গেট বন্ধ রাখাসহ কবরস্থানের ভিতর ও বাইরে কোনো ধরনের জনসমাগম না করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর