মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা

সেই মাঝিপাড়ায় ফিরেছে স্বস্তি

নজরুল মৃধা, রংপুর

রংপুরের পীরগঞ্জে সহিংসতার ঘটনায় নতুন আরও ১৩ জনকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গতকাল রংপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ফজলে এলাহী খান তাদের প্রত্যেকের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেছিলেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোর্ট জিআরও সহিদুল ইসলাম। এদিকে সহিংসতার ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নাম আসায় দলের নেতা-কর্মীরা বিব্রত বোধ করছেন। আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের যে তিন নেতার নাম এসেছে, তারা এক সময় ছাত্রশিবির ও জামায়াতের সঙ্গে জড়িত ছিলেন এমন অভিযোগ উঠেছে। পরে তারা আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশ করেন। ইতিমধ্যে ৩৭ জনকে তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হলে আসামিরা পুলিশকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে পুলিশ এখন মুখ খুলছে না। অন্যদিকে ছাত্রলীগ নেতা সৈকত মন্ডল ও মসজিদের মুয়াজ্জিন রবিউল ইসলামের দায় স্বীকার করে দেওয়া জবানবন্দিতে বেশ কিছু নাম উঠে এসেছে বলে একটি সূত্রে জানা গেছে। সেসব নাম ও জবানবন্দির তথ্য তদন্তের স্বার্থে পুলিশ এ মুহূর্তে প্রকাশ করতে অপারগতা প্রকাশ করে। এদিকে ছাত্রলীগ কারমাইকেল কলেজ শাখা বিলুপ্ত ঘোষণা করা হলেও এক সময় শিবির-অধ্যুষিত ওই কলেজের আর কতজন শিবিরকর্মী ছাত্রলীগ কিংবা আওয়ামী লীগের অনুপ্রবেশ করেছে তা খতিয়ে দেখতে আওয়ামী লীগ কাজ করছে বলে দলের একটি সূত্র জানিয়েছে। ঘটনার দিন অগ্নিসংযোগের সময় রামনাথপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজার রহমান বাবলু, ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য সেলিম মিয়া ভোলাকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের এখন পর্যন্ত দল থেকে বহিষ্কার করা হয়নি।

এদিকে ঘটনাস্থল পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসতে শুরু করেছে। অনেকেই জীবিকা নির্বাহের জন্য কাজ শুরু করেছেন। ওই গ্রামের জেলে ধীরেন্দ্র চন্দ্র বলেন, ‘সরকারের সহযোগিতায় বাড়িঘর আবার নির্মাণ শুরু করেছি। দুই দিন থেকে আখিরা নদীতে মাছ ধরে তা বাজারে বিক্রি করেছি।’ একই এলাকার প্রদীপ চন্দ্র বলেন, তিনি অটোরিকশা চালাতেন। আগুনে অটো পুড়ে যায়। তবে নতুন অটোরিকশা কিনে খুব দ্রুত তিনি তার পেশায় ফিরে যাবেন। তিনি বলেন, সরকারের সহায়তায় পুড়ে যাওয়া ঘর নতুন করে তুলেছি। গ্রামের মানুষের মধ্যে এখন  আর আতঙ্ক নেই। সবার মধ্যেই স্বস্তি এসেছে।

পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক কামরুল হাসান বলেন, আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাদের জড়িত থাকার বিষয়টি সামনে আসায় দলের অনেকেই বিব্রত বোধ করছেন। দলের একাধিক নেতা মনে করেন, দলে শুদ্ধি অভিযান শুরু করা দরকার। অনুপ্রবেশকারীদের শনাক্ত করে তাদের দল থেকে বের করে দেওয়া দরকার। তা না হলে এরাই দল এবং সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করবে।

কারমাইকেল কলেজ ছাত্রলীগ শাখার দর্শন বিভাগের কমিটির সহসভাপতি ছিলেন সৈকত মন্ডল। সৈকত প্রথম দিকে ছাত্রশিবিরের অনুসারী ছিলেন। পরে ছাত্রলীগে যোগ দেন। স্থানীয় নেতা-কর্মীদের মতে, সৈকতের মতো অনেকেই দলে ঘাপটি মেরে আছে। এরা যে কোনো সময় ছোবল দিতে পারে। তাই এদের চিহ্নিত করে দল থেকে বহিষ্কার করার দাবি তুলেছেন অনেকেই। সহিংসতায় সৈকতের জড়িত থাকার ঘটনায় রবিবার সন্ধ্যায় কারমাইকেল কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে মহানগর ছাত্রলীগ। তবে কারণ দেখানো হয়েছে, মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। ঘটনার পরদিন ১৮ অক্টোবর সৈকতকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। পীরগঞ্জ রামনাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ছাদেকুল ইসলাম ছাদেক বলেন, তার ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দুজন গ্রেফতার হয়েছে। দল থেকে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে কি না তিনি তা বলতে পারেন না।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম রাজু বলেন, অপরাধীদের কোনো দল নেই। অপরাধ যে-ই করুক না কেন, তাকে দেশের প্রচলিত আইনে শাস্তি পেতে হবে। কেউ যদি দলে অনুপ্রবেশ করে থাকেন তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেষ চন্দ্র বলেন, আরও ১৩ জনকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। আগে রিমান্ডে আনা আসামিদের বক্তব্য যাচাই করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত ৬৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৭ অক্টোবর রাতে ফেসবুকে ধর্মের অবমাননা করে স্ট্যাটাস দেওয়ার অভিযোগ তুলে দুর্বৃত্তরা মাঝিপাড়া ও আশপাশ এলাকায় সনাতনধর্মীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট করে। এতে ২৮ বাড়ির ৬৬টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সর্বশেষ খবর