শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০৯:৪৯

পাকিস্তানকে পানিতে মারার হুমকি ভারতের, নিরুত্তাপ ইমরান সরকার

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানকে পানিতে মারার হুমকি ভারতের, নিরুত্তাপ ইমরান সরকার
সংগৃহীত ছবি

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় ৪৯ সেনা সদস্য নিহতের জেরে পাকিস্তানকে পানিতে মারার ঘোষণা দিয়েছে ভারত।

বৃহস্পতিবারই দেশটির কেন্দ্রীয় পানিসম্পদ মন্ত্রী নিতিন গডকড়ি এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন।

শুক্রবার সেটাই আরও স্পষ্ট করলেন গডকড়ি। বললেন, ‘তিন নদীর পানি বন্ধ করে ভারতের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্য সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মন্ত্রণালয়কে। সেই অনুযায়ী কাজও শুরু হয়ে গেছে। পরিকল্পনার রূপরেখা চূড়ান্ত হলেই প্রধানমন্ত্রীর দফতরে জানানো হবে। সবুজ সংকেত পেলেই দ্রুত কাজ শুরু করা হবে।’

কিন্তু ভারতের এই হুমকিতে একচুলও কাবু হয়নি পাকিস্তান। এত বড় হুমকিতেও কার্যত নিরুত্তাপ ইমরান খান সরকার। 

পাকিস্তানের প্রভাবশালী দৈনিক ‘ডনের’ রিপোর্ট অনুযায়ী, এ নিয়ে বিরোধিতা করবে না ইসলামাবাদ। পাকিস্তান পানিসম্পদ মন্ত্রালয়ের সচিব খাওয়াজা শুমাইলকে উদ্ধৃত করে ‘ডন’ বলছে, ‘এ নিয়ে কোনো মাথাব্যথা নেই পাকিস্তান সরকারের।

আন্তর্জাতিক পানিচুক্তি যদি তিন নদীর পান পাকিস্তানের দিকে আসা বন্ধ করে ভারতে ঘুরিয়ে দেওয়া সমর্থন করে, তাহলে তাদের কোনো আপত্তি নেই।’

উল্লেখ্য, সিন্ধুর উপত্যকায় মোট ছয়টি নদী রয়েছে। ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে তিনটিই ভারতের দিক থেকে পাকিস্তানে প্রবাহিত। এর মধ্যে পূর্ব দিকে রয়েছে ইরাবতী, শতদ্রু এবং বিপাশা। পশ্চিম দিকের তিনটি নদী হল সিন্ধু, বিতস্তা এবং চন্দ্রভাগা। এই ছয়টি নদীর পানিবণ্টন নিয়েই ১৯৬০ সালে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরু এবং পাক প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খানের মধ্যে চুক্তি হয়।

সেটাই সিন্ধু পানিবণ্টন চুক্তি। এই চুক্তি অনুযায়ী, পশ্চিমের তিন নদী সিন্ধু, ঝিলম এবং চন্দ্রভাগার জল ব্যবহারের অধিকার পাকিস্তানের এবং ভারতীয় ভূখণ্ডে কোনোভাবেই ওই তিন নদীর প্রবাহে অন্তরায় বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারবে না ভারত। অন্য দিকে পূর্ব দিকের ইরাবতী, শতদ্রু এবং বিপাশা নদীর জল ব্যবহারের অধিকার ভারতের। তারাও এই তিন নদীর পানি প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারবে না।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য