শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:৫২
প্রিন্ট করুন printer

‘৫ রুপির ডিশ’ দিয়ে মমতা কি নির্বাচন পার হতে পারবেন?

কলকাতা প্রতিনিধি

‘৫ রুপির ডিশ’ দিয়ে মমতা কি নির্বাচন পার হতে পারবেন?

২০১৩ সালে তামিলনাড়তে ‘আম্মা উনাভাগম’ (মাদারস ক্যান্টিন) চালু করে একসময় সাড়া ফেলে দিয়েছিল তৎকালীন জয়ললিতার সরকার। এ কিচেনে এক প্লেট ইডলি ১ রুপিতে, ৫ রুপিতে সম্বর রাইস ও ৩ রুপিতে মিলতো দই-ভাত। 

সাধারণ মানুষের মন জিতে নিয়েছিল আম্মার (তামিলনাড়তে জয়ললিতা এই নামেই বেশি পরিচিত) সরকার। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যটির ৩৯ টি আসনের মধ্যে ৩৭ টি জয় পেয়েছিল জয়ললিতার দল ‘অল ইন্ডিয়া আন্না দ্রাবিড়া মুনেত্রা কাজাঘাম' (এআইএডিএমকে)। 

দুই বছর পর ২০১৬ সালে তামিলনাড়ু রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনেও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে পুনরায় ক্ষমতায় আসে আম্মা সরকার। কিন্তু সেপ্টেম্বরে হঠাৎ করেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। এরপর প্রায় ৭৫ দিন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়াই করার পর ৫ ডিসেম্বর প্রয়াত হন আম্মা। 

এবার পশ্চিমবঙ্গের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দল বিজেপিকে ঠেকাতে জয়ললিতার সেই কৌশল অবলম্বন করলো মমতা ব্যনার্জির সরকার। নিজের নামেই স্বল্পমূল্যে আহারের কর্মসূচি নিয়েছেন মমতা ব্যনার্জি। ভোটের ঠিক দুই মাস আগেই কলকাতায় ‘মা’ কিচেন চালু করলেন তিনি।

পরবর্তীতে গোটা রাজ্যেই তা ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে মমতার। এই প্রকল্পের আওতায় ৫ রুপিতে পেট ভরে ডিম-ভাত খাওয়ানোর কর্মসূচি নিয়েছেন তিনি। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে কলকাতার পৌরসভায় চালু এই কর্মসূচির নাম ‘মায়ের রান্না ঘর’। 

মায়ের রান্না ঘর প্রকল্পের উদ্বোধন করে মমতা জানিয়েছিলেন ‘এটা হল মা কিচেন। আমরা মা’য়ের জন্য গর্বিত। যেখানেই মা থাকবেন, সবকিছুই ভাল হবে। আমরা সব মা’কেই স্যালুট জানাই।’ মায়ের রান্না ঘর প্রকল্পের পুরোটাই পরিচালিত হবে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর নারীদের দ্বারা। এই প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকারকে প্রতিটি থালা প্রতি ভরতুকি দিতে হচ্ছে ১৫ রুপি। এই প্রকল্প বাবদ ১০০ কোটি রুপি বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার। 

নির্বাচনের আগে ভোটারদের কাছে পেতে মমতা সরকারের এটি হল তৃতীয় বৃহৎ প্রকল্প। এর আগে গত মাসেই চালু হয়েছে দুয়ারে সরকার, সরকারের সমস্ত কর্মসূচি মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতেই তা চালু করা হয়েছিল এবং দ্বিতীয়টি হল স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প। 

বছর কয়েক আগে জয়ললিতার ‘আম্মা কিচেন’এর দেখাদেখি ভারতের একাধিক রাজ্যে স্বল্পমূল্যে ভরতুকি যুক্ত খাবার প্রদান করা হয়েছিল কিংবা ভোটে জিততে তার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তার বেশিরভাগই নির্বাচনী সাফল্যের মুখ দেখেনি। 

বাংলাতেও ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের আশা ‘মায়ের রান্না ঘর’ই আবার মমতাকে ক্ষমতায় আনবে। দলনেত্রী মমতাও প্রায় প্রতিটি সভা থেকেই বলে আসছেন আসন্ন বিধানসভার নির্বাচনেও তার দলই তৃতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় আসতে চলেছে। 

 

বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির 

এই বিভাগের আরও খবর