শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:৩২

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মত পরিবর্তন

বছরে ১৫ হাজারের বেশি শরণার্থী নেবে যুক্তরাষ্ট্র

বছরে ১৫ হাজারের বেশি শরণার্থী নেবে যুক্তরাষ্ট্র
Google News

শরণার্থী নীতিতে অবশেষে নিজের অবস্থানে ফিরে এলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রে বছরে ১৫ হাজারের বেশি শরণার্থী আশ্রয় দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এএফপি। চাপের মুখে গত শুক্রবার বাইডেন নিজের দেওয়া প্রতিশ্রুতি থেকে সরে এসে যুক্তরাষ্ট্রে শরণার্থীদের আশ্রয় দেওয়ার সংখ্যা কমিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছিলেন। পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের বেঁধে দেওয়া বছরে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ার নিয়মই বাইডেন মেনে চলবেন বলে জানানো হয়। এ সংক্রান্ত ঘোষণার মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রেসিডেন্ট বাইডেন তাঁর অবস্থান পরিবর্তনের কথা জানালেন। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় ১৭ এপ্রিল ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের উইলমিংটন শহর ত্যাগের আগে বাইডেন বলেন, বছরে ১৫ হাজার শরণার্থী গ্রহণের সর্বোচ্চ সীমা বাতিল করা হবে। এখন আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেও চলতি বছর ঠিক কতজন শরণার্থী গ্রহণ করা হবে, তা অবশ্য বাইডেন উল্লেখ করেননি। খবরে বলা হয়, ট্রাম্প ক্ষমতায় থাকাকালে এক নির্দেশনায় যুক্তরাষ্ট্রে বছরে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার শরণার্থী গ্রহণের সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন। নির্বাচনী প্রচারে বাইডেন এই সীমা উঠিয়ে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। নির্বাচনে জিতে প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাইডেন দায়িত্ব নেওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রে সীমান্ত সমস্যা প্রকট হয়ে ওঠে। সীমান্ত দিয়ে নথিপত্রহীন লোকজনের প্রবাহ কয়েক গুণ বেড়ে যায়। প্রেসিডেন্ট বাইডেনের পক্ষে সীমান্ত ও শরণার্থী সমস্যা একসঙ্গে সামাল দেওয়া কঠিন হয়ে ওঠে। যুক্তরাষ্ট্রে শরণার্থী গ্রহণের বার্ষিক সর্বোচ্চ সংখ্যা বাড়ানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়াটা বাইডেনের জন্য জটিল হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় অনেকটা বাধ্য হয়ে শুক্রবার বাইডেন হঠাৎ ঘোষণা দেন, চলতি বছরেও যুক্তরাষ্ট্রে শরণার্থী গ্রহণ ১৫ হাজারে সীমাবদ্ধ থাকবে।

 তাঁর এ ঘোষণায় তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। মধ্যপন্থি ডেমোক্র্যাটরা ট্রাম্পের সময়ের নীতি বহাল রাখার পক্ষে। তাঁরা বলছেন, বর্তমান বাস্তবতায় অধিক শরণার্থী গ্রহণ করা হলে তা অভিবাসন ব্যবস্থার ওপর চাপ তৈরি করবে। অন্যদিকে, ডেমোক্র্যাটিক পার্টির উদারনৈতিক পক্ষ বছরে শরণার্থী গ্রহণের সংখ্যা ১ লাখ ২৫ হাজারে বৃদ্ধি করার দাবি জানিয়ে আসছে।

শুক্রবার প্রেসিডেন্ট বাইডেনের ঘোষণার পর ডেমোক্র্যাটিক পার্টির উদারনৈতিক পক্ষ দ্রুত প্রতিক্রিয়া দেখায়। কংগ্রেসওম্যান ইলহান ওমর ও আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-কর্টেজ বিবৃতি দিয়ে এ বিষয়ে তাঁদের হতাশা প্রকাশ করেন। তাঁরা বলেন, এমন সিদ্ধান্ত প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের শামিল। নির্বাচনের আগে বাইডেনের দেওয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী শরণার্থী নেওয়ার সংখ্যা না বাড়ালে তা অভিবাসীবান্ধব নাগরিক ও নাগরিক সংগঠনগুলোর প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা হবে। এমন সমালোচনার মুখে বাইডেন তাঁর সিদ্ধান্তে বদল আনলেন।