শিরোনাম
শুক্রবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২৩ ০০:০০ টা

ইডির চার্জশিটে প্রিয়াঙ্কা

ইডির চার্জশিটে প্রিয়াঙ্কা

কেন্দ্রীয় সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে এবার প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্রর নাম জড়াল। ভারতের দিল্লির কাছে হরিয়ানার ফরিদাবাদে কিছু কৃষিজমি কেনাবেচা মামলার চার্জশিটে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কার নাম ইডি উল্লেখ করেছে। তবে চার্জশিটে তাঁকে অভিযুক্ত হিসেবে জাহির করা হয়নি। আর্থিক দুর্নীতি মামলায় ইডির কোনো চার্জশিটে এ প্রথম প্রিয়াঙ্কার নাম উল্লেখ করা হলো। ইডির চার্জশিটে বলা হয়েছে, দিল্লির এক এজেন্ট এইচ এল পাহওয়ার কাছ থেকে প্রিয়াঙ্কা ২০০৬ সালে কিছু জমি ও বাড়ি কিনেছিলেন। চার বছর পর ২০১০ সালে সে জমিই আবার ওই এজেন্টের কাছে বিক্রি করে দেন। ইডির দাবি, ওই একই এজেন্টের কাছ থেকে প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট ভদ্রও ২০০৫-০৬ সালে ৪০ একরের মতো জমি কিনেছিলেন। সে জমিও ২০১০ সালে আবার তাঁকেই বিক্রি করে দেওয়া হয়েছিল। ইডির চার্জশিটে রবার্টের নামও উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু প্রিয়াঙ্কার মতো রবার্টকেও অভিযুক্ত বলে জাহির করা হয়নি। ঠিক পাঁচ বছর আগে ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগে বেআইনি আর্থিক লেনদেন ও বেনামি সম্পত্তি কেনাবেচার অভিযোগে রবার্টকে ইডি ছয় ঘণ্টা ধরে জেরা করেছিল।
 পাঁচ বছর পর লোকসভা ভোটের আগে এবার নাম জড়ানো হলো প্রিয়াঙ্কার।
প্রিয়াঙ্কা বা রবার্ট কেউই এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেননি। তবে হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী সুখবিন্দর সিং সুখু ও মহারাষ্ট্র প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি নানা পাটোলের সঙ্গে আম আদমি পার্টির মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা কাক্কর ইডির সমালোচনা করেছেন। সবার বক্তব্য, সরকার অনেক দিন ধরেই এভাবে বিরোধীদের দমাতে চাইছে। এটা নতুন কিছু নয়। এর মধ্য দিয়ে বোঝা যাচ্ছে কংগ্রেসকে নিয়ে বিজেপি কতটা ভীত।

সর্বশেষ খবর