শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ মে, ২০২১ ১২:২০
আপডেট : ১০ মে, ২০২১ ১২:২১
প্রিন্ট করুন printer

বিজেপি কর্মীকে ছাড়াতে থানায় হিরণ, বিতর্ক তুঙ্গে

অনলাইন ডেস্ক

বিজেপি কর্মীকে ছাড়াতে থানায় হিরণ, বিতর্ক তুঙ্গে
Google News

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির একটি ছবি বিকৃত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার দেয়ায় সম্প্রতি  এক বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় রবিবার প্রথম শহরে এসে থানায় গিয়ে বিজেপির ওই কর্মীর পাশে দাঁড়ালেন নব নির্বাচিত বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়।

তৃণমূলের অভিযোগের ভিত্তিতে মাহিন্দর শঙ্কর নামে এক বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রীর বিকৃত ছবি পোস্টের পাশাপাশি সাম্প্রদায়িক মন্তব্য সংবলিত একটি পোস্ট শেয়ারের অভিযোগ রয়েছে। এমনকি, সেই পোস্টে ‘ট্যাগ’ হওয়া আরও ৭জন বিজেপি কর্মী-সমর্থকের নামেও মামলা দায়ের হয়েছে। 

গ্রেফতার ওই বিজেপি কর্মী মাহিন্দর আপাতত পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। মাহিন্দরের স্ত্রীকে নিয়ে এ দিন থানায় যান খড়গপুর শহরের বিধায়ক হিরণ। বিধানসভায় শপথ গ্রহণের পরে এ দিনই প্রথম তিনি শহরে আসেন। বিজেপি কর্মীর বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন টাউন থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সঙ্গে।

এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে হিরণের পাল্টা প্রশ্ন, ‘অন্যায় করেছে বলেই তো পুলিশ হেফাজতে নিয়েছে। অথচ সারা বাংলা জুড়ে বিজেপি কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছেন। এই জেলাতেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উপর হামলা হয়েছে। যারা এই রক্তাক্ত হিংসা চালাচ্ছে তাদের কতজনকে পুলিশ হেফাজতে নিয়েছে?”

খড়গপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রানা মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করে একটি পোস্ট শেয়ার করেছিল মাহিন্দর শঙ্কর বলে ওই যুবক। এটা খুব বড় অপরাধ। আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে। আমরা অভিযুক্তকে হেফাজতে নিয়েছি।’

এদিকে, হিরণের থানায় যাওয়াকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে অন্য রাজনীতি। এক সাট্টা-জুয়া কারবারিকে পুলিশের হাত থেকে ছাড়াতে হিরণ থানায় গিয়েছিলেন বলে সামাজিক যোগাযোগ-মাধ্যমে পোস্ট করছে একদল যুবক। ওই যুবকদের অধিকাংশ আবার প্রাক্তন বিধায়ক তথা তৃণমূল নেতা প্রদীপ সরকারের ‘ঘনিষ্ঠ’ বলে পরিচিত।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর