শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:১৯

বাজারে সিন্ডিকেটের কারসাজি

মজুদবিরোধী আইনের প্রয়োগ দরকার

-------- খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মজুদবিরোধী আইনের  প্রয়োগ দরকার

দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে ব্যবসায়ীদের কারসাজি বন্ধে মজুদবিরোধী আইনের কঠোর প্রয়োগ দরকার বলে মনে করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ। তিনি বলেছেন- মুক্তবাজার অর্থনীতির এই যুগে পণ্যসামগ্রীর সরবরাহ সঠিকভাবে রাখতে হবে। পণ্যের মজুদ হিসাব সরকারকে রাখতে হবে। আবার কেউ অহেতুক মজুদ করলে তার বিরুদ্ধে মজুদবিরোধী আইনের সর্বোচ্চ প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে।

গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন দেশের খ্যাতনামা অর্থনীতিবিদ খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ। তিনি বলেছেন- নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের সরবরাহ সঠিক রাখতে প্রয়োজনীয় পণ্যের উৎপাদন ও আমদানির হিসাব কষে ঘাটতি নিরূপণ করতে হবে।

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের সাবেক এই চেয়ারম্যান বলেন, সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ-টিসিবি একটি অকার্যকর প্রতিষ্ঠান। টিসিবিকে অধিক বেশি কার্যকর করা প্রয়োজন। শুধু ব্যবসায়ীদের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে টিসিবির মাধ্যমে বাজারে পণ্যের সরবরাহ বাড়াতে হবে।

খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ আরও বলেন- চাহিদামাফিক সময়মতো পণ্যসামগ্রী আমদানি করতে পারলে ভোগ্যপণ্যের বাজারে কারসাজি হবে না। এর সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সারা বছর সক্রিয় ও সজাগ রাখতে হবে। প্রয়োজনে তাদের সহায়তা নিতে হবে। বিশেষ করে বড় গুদামগুলোতে সন্দেহজনকভাবে পণ্যের মজুদকরণ হলে সেখানে মজুদবিরোধী আইনের কঠোর প্রয়োগ ও শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। দেশে এই আইনের প্রয়োগ নেই।


আপনার মন্তব্য