শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪৩

জটিল হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি

স্যামসাং মোবাইল কারখানায় করোনার হানা আক্রান্ত ৭৭৭৯৪ জন মৃত ২৩৪৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

জটিল হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি

চীনের বাইরে বেশ কিছু দেশে সাধারণ ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস দিয়ে সৃষ্ট রোগ কভিড-১৯। অন্যদেশে আক্রান্ত রোগীদের রোগতাত্ত্বিক তথ্য পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে, তাদের রোগাক্রান্ত হওয়ার সঙ্গে চীন ভ্রমণ কিংবা কভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের সংস্পর্শের ইতিহাস নেই। অজানা উৎস থেকে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ও এর দ্রুত বিস্তারকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জটিল পরিস্থিতি বলে আখ্যায়িত করেছে।

গতকাল সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) সংবাদ সম্মেলনে এসব বিষয়ে আলোচনা হয়। প্রতিষ্ঠানের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা এ বিষয়ে পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, কভিড-১৯-এর সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণ করতে হলে এর উৎসকে চিহ্নিত করে তাকে বিচ্ছিন্ন করতে হয়। চীনের হুবেই প্রদেশে বিশেষ করে উহান শহরকে বিচ্ছিন্ন করে তার কিছু সুফল দেখা যাচ্ছে, এখন হুবেই প্রদেশে সংক্রমণের হার নিম্নমুখী। সিঙ্গাপুরেও এ ধরনের পদক্ষেপের সুফল দেখা যাচ্ছে। কিন্তু চীনের বাইরে কয়েকটি দেশে কভিড-১৯-এর দ্রুত বিস্তার ও কয়েকটি দেশে সংক্রমণের উৎস খুঁজে না পাওয়াটা মহামারী নিয়ন্ত্রণকে জটিল করে তুলেছে। ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা আরও বলেন, সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য আমরা সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরামর্শ অনুসরণের আহ্বান জানাচ্ছি। বিশেষ করে বিদেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে খুবই সতর্ক থাকতে হবে। জরুরি নয় এমন ভ্রমণ থেকে বিরত থাকতে হবে। বাংলাদেশ পরিস্থিতি : আইইডিসিআর’র ভাইরোলজি ল্যাবরেটরিতে সন্দেহজনক কভিড-১৯ রোগে আক্রান্তদের নমুনা পরীক্ষা করে কারও শরীরে ভাইরাস পাওয়া যায়নি। চীনের উহান ফেরত ৩১২ জন যাত্রী কোয়ারেন্টিন (পর্যবেক্ষণ) পরবর্তী নবম দিনে সুস্থ আছেন। সিঙ্গাপুর পরিস্থিতি : সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্রে জানা যায়, পাঁচজন বাংলাদেশের নাগরিক কভিড-১৯ সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের মধ্যে একজন আইসিইউ-তে আছেন। কোয়ারেন্টিনে আছেন পাঁচজন বাংলাদেশের নাগরিক। সংযুক্ত আরব আমিরাত পরিস্থিতি : আমিরাতে বাংলাদেশের একজন নাগরিক কভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন। দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও আমিরাতে বাংলাদেশ দূতাবাস রোগীর বিষয়ে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছে বলে জানা গেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সূত্রে জানা যায়, গতকাল পর্যন্ত বিশ্বের ২৮টি দেশে কভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৭ হাজার ৭৯৪ জন এবং মারা গেছেন ২ হাজার ৩৪৮ জন। স্যামসাং মোবাইল কারখানায় করোনার হানা : দক্ষিণ কোরিয়ার গুমিতে গত শনিবার স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের একটি মোবাইল ডিভাইস ফ্যাক্টরিতে এক ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর পুরো কারখানাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার করোনাভাইরাস সবচেয়ে বেশি ছড়িয়ে পড়া দিয়েগু অঞ্চলের খুব কাছেই গুমি শহরটি। দক্ষিণ কোরিয়ায় এক দিনের ব্যবধানে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। দেশটিতে বর্তমানে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪৬ জন, মারা গেছেন দুজন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর