শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৩ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ মার্চ, ২০২০ ২৩:৫০

খুলনায় কর্মবিরতিতে চিকিৎসকরা

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ স্থলবন্দর দিয়ে বিদেশিদের প্রবেশ নিষেধ

প্রতিদিন ডেস্ক

খুলনায় কর্মবিরতিতে চিকিৎসকরা

প্রয়োজনীয় পার্সোনাল প্রকেটটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) না থাকায়    খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগী দেখছেন না ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। গতকাল বেলা আড়াইটা থেকে তারা হাসপাতালের ওয়ার্ডে রোগী দেখা বন্ধ করেছেন।

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা জানান, চিকিৎসা দিতে গিয়ে দুই ইন্টার্ন চিকিৎসক জ্বর সর্দি কাশিতে আক্রান্ত হলে অন্যদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা. হাসান শাহরিয়ার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, কয়েকদিন ধরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা তাদের জন্য পিপিই দাবি করেও পায়নি। এ ছাড়া বাজারে সংকট থাকায় নগদ টাকা দিয়েও তা কেনা সম্ভব হচ্ছে না। এ অবস্থায় ঝুঁকি নিয়েই চিকিৎসা দিতে গিয়ে দুজন ইন্টার্ন চিকিৎসক ভাইরাসজনিত রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এই ভয়ে প্রয়োজনীয় পিপিই ছাড়া কোনো ইন্টার্ন চিকিৎসক ওয়ার্ডগুলোতে চিকিৎসা দিতে যাবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতির কারণে রোগীদের দুর্ভোগ বেড়েছে। এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বর্তমানে হাসপাতালে ১৭৫জন ইন্টার্ন চিকিৎসক কর্মরত রয়েছেন।

স্থলবন্দর দিয়ে বিদেশি নাগরিক প্রবেশ নিষিদ্ধ : বিশেষ প্রতিনিধি জানান, দেশের সব স্থলবন্দর দিয়ে বিদেশি নাগরিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। করোনা প্রতিরোধে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বহির্গমন শাখার সিনিয়র সহকারী সচিব মনিরা হক স্বাক্ষরিত চিঠিতে জানানো হয়। ওই চিঠিতে বলা হয়, সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এ জন্য বাংলাদেশের অভ্যন্তরে করোনাভাইরাসের অধিকতর সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত দেশের সব স্থলবন্দর বেনাপোল, ভোমরা, বাংলাবান্ধা, হিলি, বুড়িমারি, রৌমারি, দর্শনা, তামাবিল, শেওলা ও আখাউড়া দিয়ে বিদেশি নাগরিকদের বাংলাদেশে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হলো। এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

সরকারি চাকুরেদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ : নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে সব সরকারি দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিজ নিজ কর্মস্থলে উপস্থিত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এক চিঠিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে সরকারি তথ্যবিবরণীতে জানানো হয়েছে। নির্দেশনায় বলা হয়, বিভাগ, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সব সরকারি দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ক্ষেত্রে এই নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও এর প্রাদুর্ভাবজনিত যে কোনো জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


আপনার মন্তব্য