শিরোনাম
শনিবার, ১২ আগস্ট, ২০২৩ ০০:০০ টা
অষ্টম কলাম

৩৩ বছর পর বোরকা পরে কুলখানিতে এসে গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

হত্যাকান্ডের পর দেশ ছেড়েছিলেন তিনি। ভারত ও সৌদিআরবে কাটিয়ে দেন ৩৩ বছর। এর মধ্যে হত্যামামলায় তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। সীমান্তের বাইরে থাকায় মাসুক মিয়া থেকে যান ধরাছোঁয়ার বাইরে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি তার। বোরকা পরে বোনের কুলখানিতে অংশ নিতে এসে পুলিশের খাঁচায় বন্দি হয়েছেন তিনি। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। গতকাল তাকে আদালতে হাজির করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মাসুক মিয়া (৫৬) সিলেটের গোলাপগঞ্জ থানার করগাঁওর চরণ মিয়ার ছেলে। মাসুক মিয়াকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন গোলাপগঞ্জ থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম। পুলিশ সূত্র জানায়, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ১৯৯০ সালে গোলাপগঞ্জ থানার লক্ষ্মণাবন্দ ইউনিয়নের করগাঁওর হাছন আলীর ছেলে আবদুস সালামকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে খুন করে মাসুক মিয়া। এ ঘটনায় ১৯৯০ সালের ১৩ এপ্রিল থানায় মামলা হলে গাঢাকা দেন মাসুক। প্রথমে তিনি চট্টগ্রাম চলে যান। সেখানে ৫-৬ মাস অবস্থান করে ভারতে অবস্থানরত তার চাচা আরজদ আলীর কাছে চলে যান তিনি। সেখানে চাচার আশ্রয়ে কাটিয়ে দেন ৩৩ বছর। মাঝখানে তিনি কয়েক বছর সৌদিআরবেও ছিলেন। মাঝে মধ্যে তিনি ছদ্মবেশে সিলেট এলেও ১-২ দিন থেকে ফের ভারতে চলে যেতেন। সিলেট জেলা পুলিশের মিডিয়া অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার মো. সম্রাট তালুকদার জানান, বোনের কুলখানিতে অংশ নিতে কয়েকদিন আগে তিনি দেশে ফিরেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে বোরকা পরে গোলাপগঞ্জ আসেন মাসুক মিয়া। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

সর্বশেষ খবর