শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১১:৩৯
আপডেট : ১৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১১:৪৮
প্রিন্ট করুন printer

‌হাইকমান্ড থেকে বলা হয়েছে, নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে: আবদুল কাদের মির্জা

নোয়াখালী প্রতিনিধি

‌হাইকমান্ড থেকে বলা হয়েছে, নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে: আবদুল কাদের মির্জা

ভোট নিয়ে যে শঙ্কা ছিল, তা এখন নেই বললেই চলে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা। 

তিনি বলেন, নির্বাচন নিয়ে যে আশঙ্কা করেছিলাম, এখন আসলে সেই শঙ্কা নেই বললেও চলে। হাইকমান্ড থেকে আমাকে বলা হয়েছে, এখানে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ হবে। 

পৌরসভার একটি কেন্দ্রে ভোট দিয়ে শনিবার সকালে তিনি সাংবাদিকদের  তিনি এসব কথা বলেন।
 
ওই সময় অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোটের বিষয়ে আশা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী এই প্রার্থী।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে বর্তমান যে নির্বাচন ব্যবস্থা, সেই নির্বাচন ব্যবস্থার পরিবর্তন দাবি করে বিভিন্ন সভা-সমাবেশে কথা বলেছি। তা ছাড়া আমি এখানে যে উন্নয়ন করেছি এবং করোনার সময় আমি যে দায়িত্ব পালন করেছি, পাহাড়ের মতো আমি এখানে মানুষের পাশে ছিলাম।

পরাজিত হলে কী করবেন জানিয়ে কাদের মির্জা বলেন, ‘যদি নির্বাচিত না হই আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী যিনি নির্বাচিত হবেন, তাকে অভিনন্দন জানিয়ে আমি বাড়ি ফিরে যাব।’

জয়ের বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করে কাদের মির্জা বলেন, ‘আমি এখন শতভাগ আশাবাদী। হাই কমান্ড থেকে প্রশাসনকে বলা হয়েছে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে।’

নোয়াখালী জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, একটি নির্ভেজাল ও সংশয়মুক্ত নির্বাচন অনুষ্ঠানে এখানে নয় কেন্দ্রে নয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটসহ ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট, তিনটি টিমে ২৪জন র‌্যাব, ৮০ জনের চার প্লাটুন বিজিবি সদস্য এবং ২০০ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে নিরাপত্তা ও আইন-শৃংখলার জন্য সার্বক্ষণিক থাকবে পাঁচ পুলিশ ও ১৩ আনসার সদস্য। তিনটি কেন্দ্রের জন্য একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স ও সাতটি জরুরি টিম রাখা হয়েছে।
 
বসুরহাট পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ২১ হাজার ১১৫ জন। পুরুষ ১০ হাজার ৬২১ এবং নারী ১০ হাজার ৪৯৪জন। মোট নয়টি কেন্দ্রে বুথ সংখ্যা ৬১টি।
 
এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা, বিএনপির প্রার্থী কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা মোশাররফ হোসাইন মেয়র পদে, সংরক্ষিত তিনটি নারী কাউন্সিলর পদে সাতজন এবং নয়টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৫ জনসহ মোট ৩৫ প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর