Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ জুন, ২০১৯ ১৪:৩৮
আপডেট : ১৯ জুন, ২০১৯ ১৫:০০

সোহেল তাজের ভাগ্নের নিখোঁজের ঘটনা জাতিকে শিহরিত করেছে: রিজভী

অনলাইন ডেস্ক

সোহেল তাজের ভাগ্নের নিখোঁজের ঘটনা জাতিকে শিহরিত করেছে: রিজভী
সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী (ফাইল ছবি)।

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজের ভাগ্নে ‘নিখোঁজ’ হওয়ার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, দেশ আজ মগ দস্যু ও ঠগীদের অভয়ারণ্য। মানুষের জীবনযাপন ও বেঁচে থাকা নির্ভর করছে ঠগীদের ওপর। যেকোনো মুহূর্তে যেকোনো মানুষ অথবা যেকোনো পরিবারের যেকোনো সদস্য গুম হয়ে যেতে পারে। ক্ষমতাসংশ্লিষ্ট কোনো ব্যক্তির সঙ্গে যদি কারও ন্যূনতম মনোমালিন্য হয়, তবে নাই হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। দেশে এখন কন্ট্রাক্ট গুম চলছে। 

বুধবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির এই মুখপাত্র এমন সব মন্তব্য করেন।

বর্তমান সরকারেরই সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর ভাগ্নে ও মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নাতির গুম হয়ে যাওয়ার ঘটনা গোটা জাতিকে আতঙ্কিত ও শিহরিত করে তুলেছে বলেও মন্তব্য করেন রিজভী। তিনি বলেন, এমনিতেই দেশব্যাপী গুম হওয়া পরিবারের হাহাকারে বাতাস ক্রমশ ভারী হয়ে উঠেছে। ক্ষমতাসীনদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরই যদি গুমের ন্যায় করুণ পরিণতির শিকার হতে হয়, তা হলে সাধারণ মানুষের নিরাপদে বেঁচে থাকার আর কোনো অবলম্বনই থাকবে না। কত ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে ক্ষমতাসীন দলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদেরও রাস্তায় নামতে হয়। দেশে গণতন্ত্র ও সুশাসনকে আওয়ামী বাক্সে বন্দি করে রাখার জন্যই গুমকে জাতীয় জীবনের অংশ করা হয়েছে। বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের পাইকারি হারে গুম করার পর এখন ক্ষমতাসীনদের ভেতরেই যারা কিছুটা বৈরী পরিস্থিতির মুখোমুখি আছেন, তাদের পরিজনরাও এখন গুমের শিকার হচ্ছেন।

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে রিজভী বলেন, কালবিলম্ব না করে সামনে আরও দুটি বানোয়াট মামলায় দেশনেত্রীর জামিন নিশ্চিত হলে উচ্চতর আদালতের ওপর মানুষের আস্থা বাড়বে। এ দুই মামলায় নিম্ন আদালতকে প্রভাবিত করে খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়া হয়েছে। নিম্ন আদালতের সেই সাজার ওপর আপিল করা হলেও এখনও পর্যন্ত তাকে জামিন দেয়া হয়নি। আইনের শাসন ও স্বাধীন বিচারব্যবস্থা থাকলে বেগম জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেয়া যেত না। আমরা আশা করব উচ্চতর আদালত সব চাপকে উপেক্ষা করে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করবেন এবং জনগণের নেত্রী জনগণের মাঝে ফিরে আসবেন ইনশাআল্লাহ। 


বিডি-প্রতিদিন/১৯ জুন, ২০১৯/মাহবুব


আপনার মন্তব্য