শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:৩০

মালয়েশিয়ায় পুলিশি নির্যাতনে কারাবন্দী বাংলাদেশি প্রবাসীর জীবন সঙ্কটাপন্ন

জীবিত ফেরানোর অনুরোধ পরিবারের

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

মালয়েশিয়ায় পুলিশি নির্যাতনে কারাবন্দী বাংলাদেশি প্রবাসীর জীবন সঙ্কটাপন্ন

মালয়েশিয়ায় ইমিগ্রেশন পুলিশের অভিযানে আটক ইয়ার হোসেন নামে (৩৪) এক বাংলাদেশি যুবকের অবস্থা এখন সঙ্কটাপন্ন। চার মাস আগে অবৈধ অবস্থায় পুলিশের হাতে আটক হয়ে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় দেশটির সারোয়াক প্রদেশের জেলে বন্দী রয়েছেন তিনি। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। এই অবস্থায় সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে পরিবার আকুল আবেদন জানিয়েছে, তাকে যেন জীবিত দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হোক। এদিকে তার গ্রামে ইয়ার হোসেনের মা ছেলের শোকে বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন। কারা নির্যাতিত যুবক ইয়ার হোসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার খলাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত হাসান মিয়ার ছেলে।       

ইয়ার হোসেনের বড় ভাই মো. কামাল হোসেন জানান, তার ভাই ইয়ার হোসেন চার মাস আগে আটক হওয়ার পর জেলের ভেতর অমানবিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে কিছুদিন আগে জেল থেকে পালিয়ে যায়। গত শনিবার পুলিশ তাকে আটক করে আবারও নির্যাতন করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। সে এখন বেঁচে আছে কি না মরে গেছে জানি না। এই কথা বলে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, ''বাংলাদেশ হাইকমিশনসহ সকলের কাছে আমার ভাইয়ের জীবিত দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সহযোগিতা চাই।''

মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন সূত্র জানায়, হেফাজত থেকে ইয়ার হোসেন পালিয়ে যায়। এরপর ইমিগ্রেশন আবার গ্রেফতার করে। হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এখন মালয়েশিয়ার সারোয়াক প্রদেশের জেলে আছে। যদিও পুনরায় অপরাধ সংঘটিত হয়েছে, তারপরও তাকে দেশে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চলছে। 

সূত্র আরও জানায়, বিষয়টি মালয়েশিয়ার পুলিশ ও ইমিগ্রেশন সিরিয়ালসি নিয়েছে। তাদের গাফলতি আছে কিনা, কার উৎসাহে পালিয়েছে, কারা কারা জড়িত তদন্ত হচ্ছে। আইন অনুযায়ী বিচার হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য