শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ মে, ২০২০ ২০:২৪

জাতীয় ঈদগাহে নয়, বায়তুল মোকাররমে ঈদের ৫ জামাত

অনলাইন ডেস্ক

জাতীয় ঈদগাহে নয়, বায়তুল মোকাররমে ঈদের ৫ জামাত

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২৪ বা ২৫ মে ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে ঈদের নামাজের পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে করোনাভাইরাসের কারণে এবার জাতীয় ঈদগাহে জামাত হচ্ছে না।

এদিকে আগামীকাল শনিবার ১৪৪১ হিজরি সনের পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পর্যালোচনা এবং এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের লক্ষ্যে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হবে।

শনিবার সন্ধ্যায় (বাদ মাগরিব) ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররম সভা কক্ষে সভার সভাপতিত্ব করবেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা শায়লা শারমীন বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতের এ তথ্য জানিয়েছেন।

বায়তুল মোকাররমের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৭টায়। এতে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। মুকাব্বির হবেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের মোয়াজ্জিন হাফেজ কারী কাজী মাসুদুর রহমান।

দ্বিতীয় জামাত: সকাল ৮টায়

ইমাম: হাফেজ মুফতি মুহিবুল্লাহিল বাকী নদভী, পেশ ইমাম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ। মুকাব্বির: হাফেজ কারী হাবিবুর রহমান মেশকাত, মোয়াজ্জিন, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ।

তৃতীয় জামাত: সকাল ৯টায়

ইমাম: হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক, পেশ ইমাম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ। মুকাব্বির: মাওলানা ইসহাক, মোয়াজ্জিন, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ।

চতুর্থ জামাত: সকাল ১০টায়

ইমাম: মাওলানা মহিউদ্দিন কাসেম, পেশ ইমাম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ। মুকাব্বির: মো. শহীদুল্লাহ, চিফ খাদেম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ।

পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত: সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে

ইমাম: হাফেজ মাওলানা ওয়ালিয়ুর রহমান খান, মুহাদ্দিস, ইসলামিক ফাউন্ডেশন। মুকাব্বির: হাফেজ মো. আমির হোসেন, খাদেম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ।

উপরোক্ত পাঁচটি জামাতে কোনো ইমাম অনুপস্থিত থাকলে বিকল্প ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মুফতি, ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

এর আগে, ধর্ম মন্ত্রণালয় করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে এবার ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে ঈদুল-ফিতরের নামাজের জামাত নিকটস্থ মসজিদে মাস্ক পরে আদায় করার জন্য অনুরোধ করে।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য