শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ মে, ২০২১ ০০:১৬
আপডেট : ৯ মে, ২০২১ ০০:৪০
প্রিন্ট করুন printer

প্রবাসীদের সাহায্য করতে ‘আমি প্রবাসী অ্যাপ’ ও ‘ওয়েব পোর্টাল’ চালু

অনলাইন ডেস্ক

প্রবাসীদের সাহায্য করতে ‘আমি প্রবাসী অ্যাপ’ ও ‘ওয়েব পোর্টাল’ চালু
Google News

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ‘আমি প্রবাসী অ্যাপ’ এবং ‘ওয়েব পোর্টাল’ উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টায় একটি জুম বৈঠকের মাধ্যমে এই অগ্রণী উদ্যোগটি উদ্বোধন করা হয়।

ইমরান আহমদ,  সংসদ সদস্য এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ভার্চুয়াল এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কাইকাউস উপস্থিত ছিলেন।

উভয়ই তাদের বক্তব্যে এই উদ্যোগকে সাদরে গ্রহণ করে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। উল্লেখ করেছেন পৃথিবীর আর কোনো দেশে অভিবাসীদের জন্য কোনো ধরনের অ্যাপ বা ওয়েব পোর্টাল চালু করেনি। আমাদের অভিবাসী কর্মীদের দ্বারা আয়কৃত রেমিট্যান্স সর্বদা আমাদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, আমাদের জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ব্যাপক অবদান রাখে। সুতরাং উন্মোচিত এই অ্যাপ্লিকেশন, আমি প্রবাসী, অভিবাসন প্রক্রিয়াতে বিরাজমান জটিলতা এবং চ্যালেঞ্জগুলো হ্রাস করে সু-কাঠামোগত এবং সংগঠিত একটি সিস্টেমের ভিত্তি তৈরি করে দেবে, যা সুযোগ করে দেবে আমাদের যুবসমাজকে বৈদেশিক কর্মসংস্থানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি সুরক্ষিত ভবিষ্যত গড়ে তুলতে। আমি প্রবাসী অ্যাপ দ্বারা যাতে শতভাগ সুফল আদায় করে নিতে পারে জনশক্তি ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান এর সাথে সংযুক্ত ও নিয়োজিত ব্যক্তিত্বসমূহ ও প্রতিষ্ঠান, যাতে উপকৃত হয় আমাদের অভিবাসীরা-যা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর একটি বড় প্রাপ্তি হবে বলে মনে করেন ইমরান আহমদ এবং ডা. আহমদ কাইকাউস।

তারা আশাবাদী আমি প্রবাসী অ্যাপের মতো যুগপোযোগী অ্যাপ আধুনিক করবে আমাদের চলমান সিস্টেমকে, যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কার্যকর প্রণালী হিসেবে কাজ করবে। এটি ব্যবহার করা যেমন সহজ, তেমনি এটি দূর করতে পারবে বহু প্রতিকূলতাকে যা একজন কর্মসংস্থানের উদ্দ্যেশে বিদেশে গমনেচ্ছু দেশি ভাই বোনকে প্রায়শই মুখোমুখি হতে হয়। অভিবাসন খরচ কমানো, পুরো অভিবাসন প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা, দলিলপত্র যাচাই এবং সত্যায়িত, মোবাইল দ্বারা সম্পন্নকৃত আর্থিক লেনদেন এবং চাকরির নোটিশ-আমি প্রবাসী অ্যাপ পুরো প্রক্রিয়াকে একটি পয়েন্টে নিয়ে আসবে।

এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ডা. আহমেদ মুনিরুস সালেহীন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব, যিনি শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদানের মাধ্যমে আমি প্রবাসী অ্যাপের সফলতা আশা করেন।

অনুষ্ঠানটি চলাকালীন আমি প্রবাসী অ্যাপের সমস্থ বিশদ তথ্য ও ব্যবহারসমূহ বিস্তরভাবে উপস্থাপন করেন অ্যাপ্লিকেশন প্রস্তুত এবং প্রকল্পটির নেতৃত্বদানকারী বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারেক একরামুল হক এবং বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের পরিচালক নামির আহমেদ নুরী।

উল্লেখ্য যে জনশক্তি, কর্মসংস্থান এবং প্রশিক্ষণ (বিএমইটি) ব্যুরোর যুগ্ম সচিব ও অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিসেস নাফরিজা শায়মা দারা সঞ্চালিত, ও জনশক্তি, কর্মসংস্থান এবং প্রশিক্ষণ (বিএমইটি) ব্যুরোর অতিরিক্ত সচিব ও মহাপরিচালক মো. শামসুল আলমের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়।

আমি প্রবাসী অ্যাপটি বিদেশে গমনেচ্ছু কর্মীদের আবেদনপত্র ও ফরম পূরণ সঠিক প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন করা, প্রকৃত চাকরি অনুসন্ধান, সঠিক এজেন্সিগুলোর সাথে সংযোগ স্থাপন এবং বিমানবন্দরে সকল সহায়তামূলক কার্যাবলী, গন্তব্যতে নিশ্চিন্তে পৌঁছানো- বিদেশে কাজ করার প্রক্রিয়াকে সহজ, স্পষ্ট এবং সহজ করার জন্য একটি প্রকৃত ও পরিপূর্ণ অ্যাপ হিসেবে তৈরি করা হয়েছে। অ্যাপটি প্লে স্টোরে ডাউনলোডের জন্য পাওয়া যাবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর