শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:০৯

সাক্ষাৎকার

ফুটবল নিয়ে বড় স্বপ্ন ছিল বঙ্গবন্ধুর

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ফুটবল নিয়ে বড় স্বপ্ন ছিল বঙ্গবন্ধুর
আবুল কাশেম
Google News

বাংলাদেশে যে কজন ত্যাগী ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন বা আছেন তাদের মধ্যে মো. আবুল কাসেমের নাম অন্যতম। বয়স আশি ছুঁইছুঁই করছে তবু ক্রীড়াঙ্গনের মায়া ছাড়তে পারেননি। বাফুফে নির্বাহী কমিটির সদস্য ছাড়াও ক্রীড়াঙ্গনে তার অবদান স্মরণীয় হয়ে আছে। বর্তমানে তিনি দেশের জনপ্রিয় ক্লাব শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের পরিচালকের দায়িত্বে আছেন। শুধু সংগঠক নয়, ক্রীড়াবিদ হিসেবেও সুনাম কুড়িয়েছেন। আন্তঃস্কুল, আন্তঃকলেজে অ্যাথলেটিক্স ও সাঁতারে তিনি একাধিবার ট্রফি জিতেছেন। তৎকালীন পূর্বপাকিস্তান অলিম্পিক গেমসে হাই জ্যাম্পে চ্যাম্পিয়ন, পোল ভোল্ট ও হার্ডেলসে রানার আপ হন। ফুটবল লিগেও আস্থার পরিচয় দিয়েছেন। গতকাল যখন তার সঙ্গে আলাপ চলছিল তখন অতীতের স্মৃতিগুলোই টানছিলেন। নিজেই বললেন, ‘জানি এ নিয়ে আপনি বিরক্ত হচ্ছেন। কিন্তু কী করব।

একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু বড় ফুটবলার ছিলেন। ওয়ান্ডারার্সে খেলেছেন। তবে আমি তার খেলা দেখেনি। স্বাধীনতার পর পুরো দেশ যখন বিধ্বস্ত তখন বঙ্গবন্ধুর হস্তক্ষেপে ক্রীড়াঙ্গন সচল হয়। ১৯৭২ সালেই তিনি ফুটবল, ক্রিকেট, হকি ও কাবাডি ফেডারেশন গঠন করেন। এতেই প্রমাণ মিলে খেলাধুলাকে কতটা তিনি ভালোবাসতেন। আমাকে দেখলেই বলতেন তুই আমার অঘোষিত ক্রীড়া উপদেষ্টা। খেলাধুলা সম্পর্কে তোর অনেক জ্ঞান আছে। মেধাটা কাজে লাগা। আজ আমার ক্রীড়াঙ্গনে যে পরিচয় তার পেছনে বঙ্গবন্ধুরই অবদান রয়েছে। ফুটবল নিয়ে বঙ্গবন্ধু বড় স্বপ্ন দেখতেন। বলতেন আমার ছেলেরা একদিন বিশ্ব কাঁপাবে। আফসোস, এখন সেই ফুটবলে করুণ দশা দেখি। ব্যর্থতা থেকে কোনোভাবেই বের হতে পারছে না।