শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ জুন, ২০২১ ১৭:২২
প্রিন্ট করুন printer

অধিনায়ককেও পাশে পেলেন না অভিষেকের পরই নিষিদ্ধ সেই ইংলিশ পেসার

অনলাইন ডেস্ক


অধিনায়ককেও পাশে পেলেন না অভিষেকের পরই নিষিদ্ধ সেই ইংলিশ পেসার
ওলি রবিনসন-জো রুট
Google News

আট বছর আগে করা তার বর্ণবাদ এবং লিঙ্গবৈষম্যমূলক টুইটের জেরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হলেন ইংলিশ ক্রিকেটার ওলি রবিনসন। লর্ডসে পাঁচদিনের ক্রিকেটে অভিষেকের পরেই চরম আঁধারে ডুবল ইংলিশ এই পেসারের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। আগামী ১০ জুন থেকে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে শুরু হতে চলা দ্বিতীয় টেস্টের জন্য তার নাম বিবেচনা করা হবে না বলে জানিয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। স্বাভাবিকভাবেই জাতীয় দলের শিবির ছেড়ে রবিনসনকে তার কাউন্টি ক্লাব সাসেক্সে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত বুধবার ইংল্যান্ডের হয়ে লর্ডসে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে রবিনসনের আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়। ওই ম্যাচের আগে ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটাররা বর্ণবৈষম্যের প্রতিবাদে একটি ক্যাম্পেইনের শরিক হন লর্ডসে। এই ঘটনার পরেই আট বছর আগে রবিনসনের একাধিক বৈষম্যমূলক টুইট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই প্রথমদিনের খেলার পর পুরানো টুইটের কারণে সাংবাদিক সম্মেলনে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন রবিনসন। রবিনসন জানিয়েছিলেন, আমি লজ্জিত। আমি স্পষ্ট করে দিতে চাই আমি বর্ণবাদী কিংবা যৌনতাবাদী নই।

কিন্তু তাতে শেষ রক্ষা হয়নি। অভিষেককারীর বিরুদ্ধে তার পুরনো টুইটের কারণে তদন্ত শুরু করে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। আর লর্ডস টেস্টের পরেই ইসিবি'র তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল তদন্ত চলাকালীন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সাসপেন্ড থাকবেন রবিনসন। অথচ লর্ডসে রবিনসনের অভিষেক টেস্টের পরিসংখ্যান কিন্তু বেশ ঈর্ষনীয়। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটের পর ব্যাট হাতে মূল্যবান ৪২ রান। এরপর অভিষেক টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ফের ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি।

তবে গতকাল রবিবার (৬ জুন) ম্যাচ শেষে গোটা ঘটনায় অধিনায়ক জো রুটকেও পাশে পাননি ওলি রবিনসন। রুট সাফ জানিয়ে দেন, এমন আচরণ কোনওমতেই গ্রাহ্য করা যায় না। ওলি বিরাট ভুল করেছে। সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভন বলেছেন, তাকে সরতেই হবে। সবার আগে তাকে আচরণ শিখতে হবে এবং নিজেকে শিক্ষিত করতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০১২- ২০১৩ সালের ভাইরাল হওয়া টুইটগুলি রবিনসন যখন করেছিলেন তখন তার বয়স ছিল ১৮-১৯ বছর। সে সময় তিনি কোনও কাউন্টি ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন কি না খতিয়ে দেখছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। যদি সে সময় রবিনসনের কোনও কাউন্টি ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি থেকে থাকে তাহলে ঘটনার তদন্তভার হাতে নেবে ক্রিকেট ডিসিপ্লিন কমিশন, যা ইসিবি'র বাইরে একটি স্বাধীন সংস্থা। অন্যথা গোটা ঘটনার তদন্ত করবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড নিজেই।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ আল সিফাত