শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ জুন, ২০২১ ১০:৩১
প্রিন্ট করুন printer

অপহরণ কাণ্ডের ২ মাস পর মুখ খুললেন অজি লেগস্পিনার ম্যাকগিল

অনলাইন ডেস্ক


অপহরণ কাণ্ডের ২ মাস পর মুখ খুললেন অজি লেগস্পিনার ম্যাকগিল
স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল
Google News

অপহরণ কাণ্ডের পর দুই মাস পরও চুপছিলেন। অবশেষে মুখ খুললেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক লেগস্পিনার স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল। বান্ধবী মারিয়া ও’মিঘারের পাশে দাঁড়িয়ে নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন তিনি। এই ঘটনার জন্য তার পরিবাররে উপর দিয়ে ঝড় বয়ে গেছে। এমনটাই দাবি করেছেন ম্যাকগিল। 

তার কথায়, ‌আমি কোনও ভুল করিনি। মারিয়ারও কোন দোষ নেই। ক্রিকেট ছাড়ার পর থেকে আমি নিজের ব্যবসা ও পরিবার নিয়ে থাকি। কোনওদিন কারও সঙ্গে ঝামেলা করিনি। তবুও এমন চরম অপমানিত হতে হল। গত কয়েক মাস আমি ও আমার পরিবার কোন মানসিক অবস্থার মধ্যে দিয়ে গিয়েছি সেটা শুধু আমরাই জানি। পুলিশ তাদের গ্রেফতার করেছে। না হলে আমাদের সমস্যা বাড়ত।‌ 

গত ১৪ এপ্রিল ঘটনাটি ঘটে। সিডনির বাড়ি থেকে ম্যাকগিলকে অপহরণ করা হয়েছিল। এরপর তাকে শহরের সম্পূর্ণ অন্য প্রান্তে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রচণ্ড মারধর করার পাশাপাশি বন্দুক দেখিয়ে ভয় দেখানোও হয়েছিল। তবে সেই ঘটনার এক ঘণ্টার পর তাকে ছেড়েও দিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। কিন্তু পুলিশের হাত থেকে রেহাই পায়নি। অপহরণের দায়ে পুলিশ গ্রেফতার করে তার বান্ধবীর ভাইসহ আরও তিনজনকে। 

অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ১৪ এপ্রিল রাত আটটা নাগাদ এক ব্যক্তির সঙ্গে ঝামেলা হয় ম্যাকগিলের। তিনি ছিলেন মারিনো সোতিরোপৌলুস। সম্পর্কে যিনি ম্যাকগিলের বান্ধবী মারিয়ার ভাই। নিউট্রাল বেতে অ্যারিস্টটল নামে একটি রেস্তোরাঁর মালিক মারিনো। সেই রেস্তোরাঁতেই ম্যাকগিল ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেন। ১৪ এপ্রিল সেই ঘটনা ঘটলেও ২০ এপ্রিল গোটা ব্যপারটা পুলিশকে জানান ম্যাকগিল। পুলিশ জানিয়েছিল, ম্যাকগিলের দেহে কোনও আঘাত না থাকলেও, ভয়ের কারণেই তিনি এত বিলম্ব করে রিপোর্ট করেছিলেন। সেই কাণ্ডের দুই মাস পরে মুখ খুললেন ম্যাকগিল। 


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ আল সিফাত

এই বিভাগের আরও খবর