শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৫ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ অক্টোবর, ২০১৫ ০০:৪৮

আলোচনা সমালোচনার মধ্যমণি

নিজস্ব প্রতিবেদক

আলোচনা সমালোচনার মধ্যমণি
মাটি উৎসবে গিয়ে ঢেঁকিতে পাড় দিচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার দাবি

 

বেশ কয়েকদিন আগেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে নিয়ে বিদ্রƒপ শুরু হয়। মমতাকে বিদ্রƒপ  করে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার দাবি উঠে। আর এর পেছনে রয়েছে তার লেখা বই ‘কথাঞ্জলি’। স্কুল শিক্ষার্থীদের নিজের লেখা ‘কথাঞ্জলি’ পড়তে পরামর্শ দেওয়ার পর ভারতে রাজ্যজুড়ে ও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্রƒপ শুরু হয়। এর আগে পশ্চিমবঙ্গের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের সেরা শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার হিসেবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখা বই তুলে দেওয়া হয়। সে সময় মমতা দাবি করেন, এই বইতে তার লেখা ‘কোটগুলোতে’ চোখ বুলালেই জীবন অনেক সহজ হয়ে যাবে। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীই শিক্ষার্থীদের নিজের বই পড়ার পরামর্শ দেওয়ার খবর পরিবেশনের পাশাপাশি আনন্দবাজার পত্রিকায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লেখা আরেকটি বই ‘বেস্ট অব মমতা’ থেকে বেশ কিছু উদ্ধৃতিও তুলে দেয়।

 

যেমন : ‘উন্নত চরিত্র সভ্যতার সা-রে-গা-মা-পা’, ‘যখন সব সেট হয়ে গেছে, তখন আপসেট হয়ো না’, ‘এনভায়রনমেন্ট পলিউশন থেকেও মেন্টাল পলিউশন বেশি ক্ষতি করে’, ‘নেভার মাইন্ড ফর ব্যাকবাইটিং।’

 

 

জনসংখ্যা বাড়ছে তাই ধর্ষণ বাড়ছে

 

ভারতজুড়েই ধর্ষণ বেড়েছে বিগত বছরগুলোতে। আর পশ্চিমবঙ্গে ধর্ষণ বাড়ার নতুন তত্ত্ব উপস্থাপন করে প্রবল সমালোচনার মুখোমুখি হন মমতা। বিধানসভায় দাঁড়িয়ে এই প্রসঙ্গে বিরোধীদের প্রশ্নের উত্তরে মুখ্যমন্ত্রী বর্ধিত জনসংখ্যাকেই ধর্ষণ বৃদ্ধির কারণ হিসেবে দায়ী করেন। বলেন, ‘বিরোধীরা বলছেন ধর্ষণ বাড়ছে, কিন্তু তার সঙ্গে জনসংখ্যাও তো বাড়ছে।’

 

এক গাড়িতে মোদি-মমতা

 

বিভিন্ন সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নরেন্দ্র মোদির বিভিন্ন বক্তব্য নিয়ে সমালোচনা করেন, এমনকি তাদের সম্পর্কের এই উত্তাপ বিশ্লেষণ করে বিভিন্ন মিডিয়ায় বাংলাদেশ সফরে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গী হবেন না মমতা- এমন খবরও প্রকাশ হয়। তবে দৃশ্য পাল্টায় বাংলাদেশে। কয়েক মাস আগেই বাংলাদেশে এসেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেসময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকের জন্য এক গাড়িতে করে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে যান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যা কি না এক বিরল দৃশ্য। আর সে দৃশ্যের সাক্ষী হয় ঢাকা।

 

জেলে গেলে বই লিখবেন

 

সারদা কাণ্ডে গ্রেফতার হলে জেলে বসে বই লিখবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতায় কোর কমিটির বৈঠকে মমতা দলের অন্য নেতাদের সামনে বলেন, সিবিআই পুরো বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি করছে। বিজেপি মুকুলকে ভয় দেখাচ্ছে। আমি নীতি আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করি। আমাকে যদি সিবিআই গ্রেফতার করে জেলেও পাঠায়, ভয় পাই না। আমি সেখানে গিয়েও বই লিখব।

 

বেশি করে সিগারেট খান

 

সারদা চিটফান্ডে ছোট এবং মাঝারি আমানতকারীদের টাকা ফেরত দিতে ৫০০ কোটি টাকার তহবিল গঠনের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন মমতা। তহবিলের একটা বড় অংশ রাজ্য সরকার তামাকজাত দ্রব্যে কর বসিয়ে সংগ্রহ করবে বলে জানান তিনি। আর তাই সবাইকে বেশি করে সিগারেট খেতে পরামর্শ দেন মমতা।


আপনার মন্তব্য