Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৮ ২১:৩৭
দূষণ থেকে বাঁচুন!
সাদিয়া সারা
দূষণ থেকে বাঁচুন!
♦ মডেল : অলিভিয়া ♦ ছবি : আতিক আনন্দ

শহুরে জীবন মানেই একরাশ ধোঁয়া, ধুলোবালি আর বাতাসের দূষণ। আর তাতেই ত্বক ও চুল হারায় স্বাভাবিকতা। যত যাই করুন, দূষণ এড়ানো অসম্ভব। তাই নজর দিন যত্নে ...

 

সাম্প্রতিক সময়ের এক গবেষণা বলছে, ‘আমাদের ত্বক  এবং চুলের ৮০ ভাগ সমস্যার কারণ পরিবেশ দূষণ। রাস্তার একরাশ ধোঁয়া, ধুলোবালি, বাতাসের ধূলিকণা এবং ক্ষতিকারক ইউ-ভি রশ্মি ডে আমাদের ত্বক এবং চুলের ঠিক কতটুকু ক্ষতিসাধন করছে তা কারও কাছেই অজানা নয়। আর আমরা দিন শেষে ঘরে ফিরে কেবল ফেসওয়াশ আর শ্যাম্পুতেই নির্ভর করে থাকি। যদিও তা সাময়িক দূষণ দূর করলেও তা ত্বকের সুস্থতায় যথেষ্ট নয়। আর দূষণ এড়িয়ে জীবনযাপন করা এক কথায় অসম্ভব। তাই প্রতিদিনই সময় করে ত্বক ও চুলের যতœ নেওয়া উচিত।

 

কীভাবে দূষণ ত্বক ও চুলের ক্ষতি করে

ধুলোবালি আর দূষিত কালো ধোঁয়ার বিরুদ্ধে নানাভাবে পদক্ষেপ নিলেও আমাদের মধ্যে অনেকেই জানিনা দূষণ কীভাবে আমাদের ত্বকের ক্ষতি করছে। বায়ুমণ্ডলের ওজন স্তরে থাকা ফোটোকেমিক্যাল স্মগ ত্বকের প্রয়োজনীয় ভিটামিন ই-এর ঘাটতি সৃষ্টি করে। ফলে ত্বকের বয়সও বাড়ে দ্রুত। পাশাপাশি ত্বকের ক্ষতি পূরণের অক্ষমতা চলে আসে। আর তাতেই ত্বকে বলিরেখা, দাগ-ছোপ ইত্যিাদির মতো সমস্যা দেখা দেয়।

♦   ধুলোবালির কারণে ত্বক স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি তেল নিঃসৃত করে, যা থেকে র‌্যাশ, অ্যাকনে দেখা দেয়।

♦  কালো ধোঁয়া ত্বকের পিএইচ ব্যালেন্সও নষ্ট করে।

♦  দূষণ ভিটামিন ই-এর পাশাপাশি ত্বকের প্রয়োজনীয় অ্যান্টি অক্সিডেন্টের ঘাটতির জন্য দায়ী।

♦  ত্বকের ভালো কলেস্টেরলও দূষণ আস্তে আস্তে নষ্ট করে দেয়। ফলে ত্বক শুষ্ক এবং রুক্ষ হয়ে যায়।

 

দূষণের প্রতিরোধে যত্ন কেমন হওয়া উচিত

দূষণ থেকে ত্বককে সুরক্ষা দিতে হলে সঠিকভাবে যত্ন নেওয়া দরকার। এক্ষেত্রে ভালো বিউটিশিয়ানের পরামর্শ নিন। এক্সপার্টের পরামর্শ ত্বকের ধরন বুঝে স্কিনকেয়ার রুটিন তৈরি করুন। ধুলোবালি বা দূষণ থেকে ত্বকের সুরক্ষায় রূপ রুটিনে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রাখার চেষ্টা করুন। পাশাপাশি ধুলোবালি থেকে ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে ভালো ফেসওয়াশও প্রয়োজন।

♦  অ্যান্টি অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ প্রসাধনী কিনুন। ভিটামিন ই, সি, স্কোয়ালিন ইত্যাদি যুক্ত প্রসাধনীতে উপকার পাবেন।

♦  ফেসওয়াশের সঙ্গে ডেন্টল ও স্ক্র্যাবিং প্রয়োজন। পাশাপাশি ক্লেনজিং, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং রুটিন মেনে চলুন।

♦    সরাসরি মেক-আপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

♦   দিনের বেলা সানস্ক্রিন মাস্ট।

♦   রোদে চুলেরও যথেষ্ট ক্ষতি হয়।

♦   সানস্ক্রিনের মতোই চুলের জন্য ইউ-ডি সুরক্ষাযুক্ত হেয়ার সিরাম ব্যবহার করুন।

♦   বাইরে বেরোলে স্কার্ফ জড়িয়ে নিন। ক্ষতি কম হবে। সম্ভব হলে ছাতা ব্যবহার করুন।

 

ত্বক উপযোগী কলার মাস্ক : একটা পাকা কলা চটকে তাতে ১ চা চামচ মধু, ২ চা চামচ টকদই মিশিয়ে নিন। পুরো মুখে এই মিশ্রণ লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরে আসবে। ত্বকের রন্ধ্রে জমে থাকা ধুলোবালিও পরিষ্কার হবে এবং ত্বক অনেক কোমল ও নরম হয়ে উঠবে।

 

নারিকেল ও মধুর হেয়ার প্যাক : চুলের আর্দ্রতা বজায় রাখতে নারিকেল তেল ও মধু; দুটো উপাদানই খুব ভালো। চুলের দৈর্ঘ্য অনুযায়ী সমপরিমাণ নারকিল তেল এবং মধু একসঙ্গে মিশিয়ে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করুন গোড়া থেকে ডগা অবধি। আধ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow