Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ১৮:৫১

শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চলবে সাত কলেজের

রবিবারের মধ্যে দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি শিক্ষার্থীদের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

রবিবারের মধ্যে দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি শিক্ষার্থীদের
পাঁচ দফা দাবিতে গত মঙ্গলবার নীলক্ষেতে সড়ক অবরোধ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

সেশনজট নিরসন, পরীক্ষার ফলাফল পুনঃমূল্যায়নসহ পাঁচ দফা দাবিতে চলমান অবরোধ কর্মসূচি রবিবার পর্যন্ত স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। এই সময়ে ‘শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি’ পালন করবেন তারা। তবে, রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় শিক্ষার্থীদের পাঁচ দফা দাবি মানা না হলে ২৯ এপ্রিল কঠোর কর্মসূচি ঘোষণার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার ঢাকা কলেজ ক্যাফেটারিয়ায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান আন্দোলনরত সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিরা। প্রতিনিধি দলের পক্ষে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী কাজী নাসির বলেন, ‘আমাদের সমস্যা সমাধানের জন্য আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির সঙ্গে আলোচনা করেছি। কিন্তু আমরা তাদের কথায় ততটা আশস্ত হতে পারিনি। তবে তার প্রতি সম্মান রেখে আন্দোলন স্থগিত করছি। এই সময়ের মধ্যে আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।’

শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি হিসেবে শনিবার সাত কলেজের অধ্যক্ষবৃন্দের কাছে সমস্যাগুলো নিয়ে স্মারকলিপি প্রদান এবং নিজেদের মধ্যে আলোচনা করবেন কলেজসমূহের শিক্ষার্থীরা।

কাজী নাসির বলেন, ‘সিন্ডিকেট সভায় আমাদের পাঁচ দফা দাবি মেনে না নেওয়া হলে সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে কঠোর আন্দোলনের ঘোষণা দেওয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘দুঃখজনক হলেও সত্য, অনেক আশ্বাস পেলেও আড়াই বছরে তার বাস্তবায়ন আমরা পাইনি। এখনো কার্যকর একাডেমিক ক্যালেন্ডার তৈরি না করায় বিভিন্ন বর্ষে সেশনজট লেগে আছে। কোনো সিলেবাস তৈরি না করায় পাঠদানে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। ফলাফল অবমূল্যায়ন হচ্ছে।’ এ সব বিষয়ে অভিযোগ দিতে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিরা বারবার উপাচার্য ও প্রক্টরের সঙ্গে সাক্ষাতের চেষ্টা করলেও সুযোগ না দেওয়ায় তারা রাজপথে নামতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনে ‘অনিচ্ছাকৃত’ অবরোধ কর্মসূচির কারণে জনভোগান্তি সৃষ্টি হওয়ায় শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে দুঃখপ্রকাশ করা হয়।
 
এর আগে, মঙ্গলবার ও বুধবার রাজধানীর নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করেন পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। দাবির বিষয়ে বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সাথে আলোচনার পরও সন্তুষ্ট হতে পারেননি তারা। এরপরই সিন্ডিকেট সভায় দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আগামী রবিবার পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা। তবে বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণে উদ্যোগের কথা জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
শিক্ষার্থীদের দাবির মধ্যে রয়েছে, পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ত্রুটিমুক্ত ফলাফলসহ প্রকাশসহ একটি বর্ষের সব বিভাগের ফল একসঙ্গে প্রকাশ করা;  ডিগ্রি, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সব বর্ষের ফলে গণহারে অকৃতকার্য হওয়ার কারণ প্রকাশসহ খাতার পূনর্মূল্যায়ন করা; সাত কলেজ পরিচালনার জন্য স্বতন্ত্র প্রশাসনিক ভবন রাখা; প্রতিমাসে প্রতিটি বিভাগে প্রতি কলেজে দুই দিন করে মোট ১৪ দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ক্লাস নেওয়া এবং সেশনজট নিরসনের লক্ষ্যে অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার প্রকাশসহ ‘ক্র্যাশ প্রোগ্রাম’ চালু করা প্রভৃতি।

বিডি-প্রতিদিন/২৫ এপ্রিল, ২০১৯/মাহবুব

 


আপনার মন্তব্য