শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০১:৪২

সেই বৃক্ষমানব আবুল আবারও ঢামেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুল আলোচিত সেই বৃক্ষমানব আবুল বাজানদার আবারও ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। নিজের ভুল স্বীকার করে গতকাল সকালে মা আমেনা বেগমকে সঙ্গে করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আসেন। চিকিৎসকরা বলছেন, আবুলের হাতে নতুন করে শেকড় গজিয়েছে। বোর্ড গঠন করে নতুন করে তার চিকিৎসা শুরু হবে। আবুল বাজানদার জানান, ২০১৬ সালে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি হই। আড়াই বছর চিকিৎসা গ্রহণ করি। প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতায় চিকিৎসকরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে আমার হাতে ও পায়ে ২৫টি অস্ত্রোপচার করেন। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। এতগুলো অপারেশনের পরেও আমি যখন সুস্থ হচ্ছি না। আমার হাতে ও পায়ে নতুন করে শেকড় গজাচ্ছে। তখন আমি নিরাশ হয়ে একপর্যায়ে গ্রামের বাড়ি  খুলনায় চলে যাই। এখন আমি ভুল বুঝতে  পেরেছি। আমার যাওয়াটা ঠিক হয়নি। চিকিৎসার জন্য আবার ফিরেছি। বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন জানান, বাজানদার হাসপাতাল ছেড়ে যাওয়ার পর থেকেই ওর সঙ্গে আমি বার বার ফোনে যোগাযোগ করেছি। তাকে ফিরে আসতে বলেছি। সে ঠিকই ফিরে এসেছে।

তবে অনেক দেরি হয়ে গেছে। ওর চিকিৎসা আবারও শুরু করব। সোমবার বোর্ড গঠনের পাশাপাশি তার চিকিৎসার সব সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আবুল বাজানদার গত ১০ বছর ধরে হাত-পায়ে শেকড়ের মতো গজিয়ে ওঠা বিরল এক জেনেটিক রোগে ভুগছিলেন। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে তাকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার চিকিৎসার জন্য পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সব খরচ রাষ্ট্রীয়ভাবে করার নির্দেশ দেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর