শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ মে, ২০১৯ ২৩:০৯

আশঙ্কাজনক রাজনৈতিক শূন্যতা বিপদসংকেত

- বাংলাদেশ জাসদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন-পরবর্তী বিষণ্ন পরিস্থিতিতে দেশে বিচলিত হওয়ার মতো এক রাজনৈতিক শূন্যতা দৃশ্যমান হয়েছে। এই আশঙ্কাজনক পর্যায়ের পৌঁছানো এ শূন্যতাকে বিপদসংকেত মনে করছে বাংলাদেশ জাসদের স্থায়ী কমিটি। গত দুই দিন তোপখানা সড়কে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ জাসদের স্থায়ী কমিটির সভায় এ অভিমত বেরিয়ে আসে। সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জাসদের সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া। আলোচনায় অংশ নেন দলের কার্যকরী সভাপতি মঈন উদ্দিন খান বাদল এমপি, সাধারণ  সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, স্থায়ী কমিটির সদস্য ডা. মুশতাক হোসেন, মোহাম্মদ খালেদ, করিম সিকদার, মঞ্জুর আহমেদ মঞ্জু, নাসিরুল হক নওয়াব, আনোয়ারুল ইসলাম বাবু প্রমুখ। সভায় গৃহীত প্রস্তাবে বলা হয়, ১৪ দল তথা মহাজোটের সরকার সংসদ নির্বাচনের পরে আওয়ামী লীগের একক দলীয় সরকারে পরিণত হয়েছে। শুধু তাই নয়, রাজনৈতিক সরকারের সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক পদ্ধতিতে হওয়ার প্রবণতা ক্রমহ্রাসমান হয়ে এখন তা প্রশাসনের একটি ক্ষুদ্র গোষ্ঠীর মধ্যে সীমিত হয়ে পড়েছে। এ গোষ্ঠীটি সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রতিটি বিষয়, এমনকি নারী নির্যাতন মোকাবিলার মতো দৈনন্দিন করণীয়  নির্ধারণের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণের সমগ্র প্রক্রিয়াকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মুখাপেক্ষী করে ফেলেছে। এর আড়ালে প্রশাসনের বিশেষ ক্ষুদ্র গোষ্ঠীটি গণতন্ত্রকে বাক্সবন্দী করতে চাইছে, যা সাংবিধানিক ও সংসদীয় পদ্ধতিকে হুমকির মধ্যে ফেলেছে। অন্যদিকে জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগ-বহির্ভূত সংসদ সদস্যদের জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনার জন্য দেওয়া নোটিসকে উপেক্ষা করে জাতীয় সংসদে সমালোচনামূলক আলোচনার সুযোগও সীমিত করে ফেলা হচ্ছে। অপরপক্ষে সাম্প্রদায়িকতা, সন্ত্রাস ও অদৃশ্য শক্তিনির্ভর বিএনপি-জামায়াত জোট জনগণের আস্থা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে সৃষ্টি হয়েছে এক আশঙ্কাজনক রাজনৈতিক শূন্যতা। গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ব্যবস্থার জন্য এ ধরনের রাজনৈতিক শূন্যতা বিপদসংকেত। বাংলাদেশ জাসদ এ শূন্যতা পূরণে তার দায়িত্ব যথাসাধ্য পালন করে যাবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর