শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ মার্চ, ২০২১ ২৩:১৮

আইসিইউতে বাড়ছে করোনা রোগী

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল পরিস্থিতি

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউতে (ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট) করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গের রোগীর সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। সঙ্গে বাড়ছে মুমূর্ষু রোগী আসার সংখ্যা। ফলে করোনা সংক্রমণ নিয়ে অতীতের দুর্বিষহ পরিস্থিতির শঙ্কা দেখা দিয়েছে। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, করোনা নিয়ে এখনো যাচ্ছেতাই চলাফেরা করার কোনো সুযোগ নেই। জানা যায়, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউতে শয্যা আছে ১০টি। গত জানুয়ারি থেকে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আইসিইউতে গড়ে প্রতিদিন রোগী ভর্তি ছিলেন দুই থেকে পাঁচ জন করে। এর পর থেকে প্রতিদিন রোগী ভর্তি ছিলেন গড়ে সাত থেকে আট জন করে। ২৫ ফেব্রুয়ারি ভর্তি ছিলেন আটজন, ২২, ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি ভর্তি ছিলেন ১০ জন করে, ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি আটজন করে এবং গত শনি ও রবিবার ভর্তি ছিলেন পাঁচজন করে। ১০ জন ভর্তি থাকলে নতুন কোনো রোগী এলেও ভর্তি করা যায় না। মুমূর্ষু রোগীকে শয্যা খালির জন্য অপেক্ষা করতে হয়। চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের কনসালট্যান্ট ডা. রাজদীপ বিশ্বাস বলেন, ‘আইসিইউতে শয্যা খালি নেই, করোনাকালে এ ধরনের খবর শোনা গিয়েছিল। মাঝখানে রোগীর সংখ্যা কমে ছিল। জানুয়ারির শেষ থেকে করোনা রোগীর সংখ্যা, মৃত্যু ও সুস্থতার হার কমে আসায় আনন্দিত হই।

কিন্তু গত কয়েক দিনের পরিস্থিতিতে আবার আশঙ্কা তৈরি হয়। আইসিইউর শয্যাগুলো পূর্ণ থাকায় ভবিষ্যতে সন্তোষজনক পরিস্থিতি নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।’

মেডিসিন বিভাগের কনসালট্যান্ট ডা. এ এইচ এম হামিদুল্লাহ মেহেদী বলেন, ‘অনেক মানুষের মধ্যে করোনাভীতি কমে গেছে। নিজেকে সাহসী মনে করছেন। পর্যায়ক্রমে সবাই স্বাভাবিক জীবন যাপন করছেন। যোগ দিচ্ছেন উৎসব-অনুষ্ঠানে। কিন্তু এ মোটেও উচিত নয়। করোনা উপেক্ষা করার সময় এখনো আসেনি। তাই সবাইকে সতর্ক ও সচেতন হয়ে জীবনযাপন করতে হবে। একই সঙ্গে করোনার টিকা গ্রহণও জরুরি।’

সিভিল সার্জন কার্যালয়সূত্রে জানা যায়, গতকাল পর্যন্ত চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ হাজার ৯৯৯ জন। এর মধ্যে মহানগরে ২৭ হাজার ৪৬৮ আর ১৫ উপজেলায় ৭ হাজার ৫৩১ জন। ইতিমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩৭৫ জনের। এর মধ্যে মহানগরে ২৭৪ আর উপজেলায় ১০১ জন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর