শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৩ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ মে, ২০২১ ০০:০০

ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে শিশু হত্যা কুমিল্লায়

মাদরাসার সেপটিক ট্যাংক থেকে লাশ উদ্ধার

কুমিল্লা প্রতিনিধি

Google News

নিখোঁজের দুই দিন পর গতকাল কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা শাহ ইসরাফিল কামিল মাদরাসার সেপটিক ট্যাংক থেকে সাত বছর বয়সীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ ধারণা করেছে, ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা শেষে শিশুর লাশ বস্তাবন্দী করে ট্যাংকে ফেলে রাখে দুর্বৃত্তরা। শিশুর পিতা জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়ির বাইরে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয় তার মেয়ে। পরে বুড়িচং থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

এদিকে ট্যাংকে শিশুর বস্তাবন্দী লাশের সন্ধানদাতা একই গ্রামের মো. কাইয়ুমকে (১৬) পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। প্রাথমিকভাবে কাইয়ুম ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। কাইয়ুম ওই মাদরাসায় দফতরীর কাজ করতেন। মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. ফরিদ আহমেদ জানান, কাইয়ুমের বাবা ৪০ বছর ধরে মাদরাসায় দফতরীর কাজ করতেন। গত ফেব্রুয়ারিতে অবসরে যায় কাইয়ুমের বাবা আবদুল মবিন।

পরে বাবা আবদুল মবিনের অনুরোধে পরবর্তী দফতরি নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত ১ হাজার ৫০০ টাকা বেতনে চাকরি করতেন কাইয়ুম।

বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা যাচ্ছে, শিশুটিকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। আমরা লাশ উদ্ধার করেছি। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। একজনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানা যাবে।

এই বিভাগের আরও খবর