শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা

বরিশালে লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসব

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসব

আবার প্রাণ ফিরেছে বরিশালের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে। দীর্ঘ দেড় বছরেরও বেশি সময়ের স্থবিরতা ভেঙে তিন দিনব্যাপী লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসবের আয়োজন করেছে জেলা শিল্পকলা একাডেমি। এর মধ্য দিয়ে আবার সরব হয়েছে সংস্কৃতিপ্রেমীরা। এই ধারাবাহিকতা রক্ষায় স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন সাংস্কৃতিক সংগঠকরা। জেলা শিল্পকলা একাডেমির সব আয়োজনেই লোকজ সংস্কৃতি রাখার দাবি জানিয়েছেন সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের নেতারা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মনোজ্ঞ নৃত্য পরিবেশন করে শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা। বাঙালি সংস্কৃতির পুরনো ঐতিহ্য নতুন করে ফিরিয়ে আনায় ঈদের আনন্দ বিরাজ করছে বলে জানিয়েছেন সংস্কৃতিপ্রেমীরা। তিন দিনব্যাপী উৎসবের প্রথম দিন বৃহস্পতিবার কবিগান ও রয়ানী পরিবেশন করা হয়। ফাঁকে ফাঁকে চলে আলোচনা সভা। গতকাল দ্বিতীয় দিন সন্ধ্যায় আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা এবং বাউল গানের। আজ শনিবার তৃতীয় ও শেষ দিনে থাকছে আলোচনা সভা এবং বাউল গান। স্থানীয় শিল্পীরাই তিন দিনের এই লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করছেন।

বরিশালের নাট্য ব্যক্তিত্ব সৈয়দ দুলাল বলেন, করোনায় স্থানীয় সাংস্কৃতিক অঙ্গন স্থবির ছিল। জেলা শিল্পকলা একাডেমির এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে বরিশালের সাংস্কৃতিক চর্চা আরও বেগবান হবে।

বরিশাল সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ চক্রবর্তী বলেন, আকাশ সংস্কৃতির জাঁতাকল থেকে লোকজ সংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখতে এমন উদ্যোগ প্রশংসনীয়। আগামীতেও সরকারি সব অনুষ্ঠানে লোকজ সংস্কৃতি রাখার দাবি জানান তিনি।

বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার বলেন, সংস্কৃতির দিক দিয়ে বরিশাল অনেক এগিয়ে। করোনার কারণে সব কিছু বন্ধ ছিল। তিন দিনব্যাপী এই লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসবের মধ্য দিয়ে স্থানীয় সাংস্কৃতিক অঙ্গন আবার প্রাণ ফিরে পাবে বলে তিনি মনে করেন।

সর্বশেষ খবর