শিরোনাম
প্রকাশ : ২ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:২৫
প্রিন্ট করুন printer

বাংলা হাউজিং কোভিড প্রজেক্টে অংশ নিলেন টাওয়ার হ্যামলেটস ও হেকনীর মেয়র

যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি

বাংলা হাউজিং কোভিড প্রজেক্টে অংশ নিলেন টাওয়ার হ্যামলেটস ও হেকনীর মেয়র
মেয়র জন বিগস এবং ফিলিপ গ্লানভিল

বাংলা হাউজিং এসোসিয়েশনের কোভিড সচেতনতা প্রজেক্টে অংশ নিলেন টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র জন বিগস এবং লন্ডন বারাহ অব হেকনীর মেয়র ফিলিপ গ্লানভিল।

টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র জন বিগস ভিডিও বার্তায় বলেন, করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশি মানুষ। বাংলা হাউজিং এসোসিয়েশনের বাংলা কোভিড ১৯ প্রজেক্ট খুবই সময়োপযোগী উদ্যোগ। আমি বাসিন্দাদের অনুরোধ করব কোভিড সংক্রান্ত সরকারের নিয়ম কানুন মেনে চলার জন্য। তিনি বাংলা হাউজিং এসোসিয়েশনের কোভিড প্রজেক্টের সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

মেয়র অব হেকনী ফিলিপ গ্লানভিল দীর্ঘ ওয়েবিনার মিটিংয়ে বাংলা হাউজিং এসোসিয়েশনের সিইও বশির উদ্দিনের সাথে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, এই উদ্যোগের সাথে যুক্ত হতে পেরে তিনি আনন্দিত। এছাড়াও হেকনীতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের করোনা সচেতনতার জন্য বাংলা হাউজিং যে প্রজেক্ট করছে সেটাকে অনুকরণীয়য় হিসেবে ধরে বাকি হাউজিং এসোসিয়েশনগুলোরও এই রকম উদ্যোগ নেয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন।

বাংলা হাউজিং এসোসিয়েশনের সিইও বশির উদ্দিন বলেন, বাংলা কোভিড প্রজেক্টে দুই বারাহ‘র দুই জন মেয়রের অংশগ্রহণ এবং তাদের সন্তুষ্টি আমাদের কার্যক্রমের গুরুত্ব বাড়িয়েছে।

উল্লেখ্য, হেকনীতে অবস্থিত বাংলা হাউজিং এসোসিয়েশন কোভিডে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত বাংলাদেশি কমিউনিটিকে সচেতন করতে সরকারি নির্দেশনাকে বাংলায় অনুবাদ করে টাওয়ার হ্যামলেটস ও হেকনীর ১০ হাজার বাসিন্দার কাছে পৌঁছানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই বাংলায় ভিডিও নির্মাণ, লিফলেট বিতরণ, বাসিন্দাদের ফোনে, বিভিন্ন কমিউনিটি সংগঠনের সাথে ওয়েবিনারের মাধ্যমে তাদের কার্যক্রম চলছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪২
প্রিন্ট করুন printer

প্রথমে ধাপে টিকা পাবে রাজশাহীর ৭ লাখ ২০ হাজার মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী:

প্রথমে ধাপে টিকা পাবে রাজশাহীর ৭ লাখ ২০ হাজার মানুষ
প্রথম ধাপে রাজশাহী বিভাগে টিকা পাবেন ৭ লাখ ২০ হাজার মানুষ। প্রথম ডোজ প্রয়োগের দুই মাস পর প্রত্যেককে দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রয়োগ করা হবে। সোমবার রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাবিবুল আহসান তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
 
তিনি জানান, ভারত থেকে আসা উপহারের টিকা পাচ্ছে না রাজশাহী বিভাগ। তবে অক্সফোর্ডের যে টিকা সরকার কিনছে সেখান থেকে রাজশাহী বিভাগের ৭ লাখ ২০ হাজার মানুষের জন্য টিকা পাওয়া যাচ্ছে। এই টিকা প্রয়োগের জন্য কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। দুটি বুথে টিকা প্রয়োগ শুরু হবে। প্রথম ধাপে রাজশাহী বিভাগের জন্য মোট ৬০ কার্টুন টিকা আসছে। এর মধ্যে রাজশাহী জেলার জন্য বরাদ্দ ১৫ কার্টুন। বিভাগীয় শহর হিসেবে রাজশাহীতে আসবে আরও অতিরিক্ত চার কার্টুন।
 
প্রতিটি কার্টুনে মোট ১ হাজার ২০০ ভায়াল টিকা থাকবে। একটি ভায়ালে ১০ জন ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া সম্ভব। ফলে রাজশাহী বিভাগের মোট ৬০ কার্টুনে ৭ লাখ ২০ হাজার মানুষকে টিকা দেওয়া সম্ভব। রাজশাহী জেলার ১৯ কার্টুনে ২ লাখ ২৮ হাজার মানুষকে টিকা প্রয়োগ করা হবে।
 
বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক জানান, রাজশাহীতেই তারা চারটি টিকা প্রয়োগ কেন্দ্র প্রস্তুত করেছেন। এগুলো হলো, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল, সিটি করপোরেশনের নগর ভবন, রাজশাহী পুলিশ লাইন্স হাসপাতাল এবং রাজশাহী সেনানিবাস হাসপাতাল।
 
এর মধ্যে প্রথমে শুধু রামেক হাসপাতাল কেন্দ্র চালু করা হবে। সেখানে আছে দুটি বুথ। টিকা রাজশাহী আসার পর কেন্দ্রটি উদ্বোধন করা হবে। রামেক হাসপাতালে দুইজন নার্স টিকা প্রয়োগ করবেন। সোমবার সুরক্ষা অ্যাপসের উদ্বোধন হচ্ছে। যারা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা পাবেন তাদের নাম এই অ্যাপসে নিবন্ধন করা থাকবে। পর্যায়ক্রমে তাদের ডেকে টিকা দেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:৫৮
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৪২
প্রিন্ট করুন printer

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সর্বশেষ তথ্য

অনলাইন ডেস্ক

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সর্বশেষ তথ্য
প্রতীকী ছবি

সর্বশেষ জানানো ২৪ ঘণ্টায় (সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৪১ জনের। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৬০২ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৩২ হাজার ৪০১ জনে।

সোমবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এদিন সুস্থ হয়েছেন ৫৬৬ জন। মোট সুস্থ হলেন ৪ লাখ ৭৬ হাজার ৯৭৯ জন।

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:৫০
প্রিন্ট করুন printer

সিলেটে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত
প্রতীকী ছবি

সিলেট বিভাগে আরও ১৯ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। একই সময়ে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তবে সিলেট বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি। গত চব্বিশ ঘণ্টায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সোমবার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. সুলতানা রাজিয়া স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে আরও ১৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। যাদের মধ্যে সিলেট জেলার ১৬ জন রয়েছেন। এছাড়াও সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও ২জন ও মৌলভীবাজারে আরও ১জন চিকিৎসাধীন রয়েছে।

একইদিনে সিলেট বিভাগে আরও ১২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যাদের সকলেই সিলেট জেলার বাসিন্দা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় অফিস সূত্রে জানা যায়, রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা ১৫ হাজার ৮৮৯ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় অর্ধেকেরও বেশি ৯ হাজার ৪৫৭ জন। এছাড়া সুনামগঞ্জে ২ হাজার ৫৩২ জন, হবিগঞ্জে ১ হাজার ৯৭৯ জন ও মৌলভীবাজারে ১ হাজার ৯২১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিলেটের চার জেলায় ৪০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। যাদের ৩৫ জন সিলেট জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ও মৌলভীবাজারে ৫ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন বিভাগের ১৫ হাজার ১৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২৭২ জন।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:০৭
প্রিন্ট করুন printer

লন্ডনে করোনায় বিশ্বনাথের দুই সহোদরের মৃত্যু

সাইফুল ইসলাম বেগ, বিশ্বনাথ (সিলেট):

লন্ডনে করোনায় বিশ্বনাথের দুই সহোদরের মৃত্যু

লন্ডনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুই বাংলাদেশি সহোদর মৃত্যুবরণ করেছেন। তাদের গ্রামের বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর ধর্মদা গ্রামে। প্রথমকে আক্রান্ত হন লন্ডন শহরে বাসবাসরত শেখ ময়নুর রহমান বাদশা মিয়া (৬৭)। 

ক’দিন পর তার ছোট ভাই শেখ একবালুর রহমান বাহার মিয়ারও কোভিড-১৯ ধরা পড়ে। তাদের উভয়কেই স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বেশ কিছুদিন চিকিৎসাধীন থেকে গেল ২২ জানুয়ারি শুক্রবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় হাসপাতালেই শেখ ময়নুর রহমান বাদশা মিয়া ও ২৪ জানুয়ারি রবিবার রাত ৯টায় শেখ একবালুর রহমান বাহার মিয়া মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

তাদের আপন ফুফাতো ভাই শেখ হাবিব উল্লাহ মাস্টার দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা শেখ সাহিদুর রহমান বলেন, পারিবারিক সিদ্ধান্তনুযায়ী লন্ডনেই তাদের সমাহিত করা হবে।    

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:০০
প্রিন্ট করুন printer

করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগে প্রস্তুত রংপুর

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর:

করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগে প্রস্তুত রংপুর
ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে সরকারের কেনা অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ৫০ লাখ ডোজ আজ দেশে পৌঁছেছে।

সারা দেশে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ ফেব্রুয়ারি মাস থেকে শুরু হবে। করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগের ক্ষেত্রে প্রস্ততি গ্রহণ করেছে রংপুর স্বাস্থ্য বিভাগ। 

রংপুর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ভ্যাকসিন সঠিক ভাবে সংরক্ষণ ও প্রযোগের জন্য রংপুরে দুটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রথম কমিটি ঢাকা থেকে আসা ভ্যাকসিন গ্রহণ ও সংরক্ষণ করবেন। অপর কমিটি ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকবেন। তারা কোথায় কিভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগ হবে এসব বিষয়ে তদারকি করবেন। 

ভ্যাকসিন প্রয়োগের ক্ষেত্রে ১০ ধরনের ব্যক্তিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। যারা প্রথমে ভ্যাকসিন পাবে তাদের তালিকা তৈরীর কাজ প্রায় চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন। ভ্যাকসিন বিষয়ক কর্মসূচি পরিচালিত হবে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মা, শিশু ও কিশোর স্বাস্থ্য কর্মসূচির আওতায়। প্রতিটি উপজেলায় ৪ জন স্বাস্থ্য বিভাগের লোক ও ৫০ জন স্বেচ্ছাসেবী ভ্যাকসিন প্রয়োগে কাজ করবে। তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেয়ার কাজ চলছে। ভ্যাকসিনের গুণগত মান যাতে নষ্ট না হয় এ জন্য সংরক্ষণের জন্য ফ্রিজিং ব্যবস্থাও প্রস্তুত রয়েছে। সূত্রমতে রংপুর জেলায় প্রায় ৩ লাখ মানুষের করোনার ভ্যাকসিন পাওয়ার কথা রয়েছে। 

সিভিল সার্জন ডা. হিরন্ব কুমার রায় জানান, করোনার ভ্যাকসিন প্রয়োগে রংপুরের স্বাস্থ্য বিভাগ প্রস্তুত রয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজনকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ভ্যাকসিন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য দুটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর