৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০১:১৮

দেশজুড়ে স্বর্ণের দোকানের নিরাপত্তা জোরদারের অনুরোধ

অনলাইন ডেস্ক

দেশজুড়ে স্বর্ণের দোকানের নিরাপত্তা জোরদারের অনুরোধ

সারাদেশের স্পর্শকাতর জুয়েলারি দোকান ও মার্কেটের নিরাপত্তা জোরদার করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি। ফাইল ছবি

সারাদেশের স্পর্শকাতর জুয়েলারি দোকান ও মার্কেটের নিরাপত্তা জোরদার করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি। সাভারের আশুলিয়ার নয়ারহাট বাজারে একসঙ্গে ১৭টি সোনার দোকানে ডাকাতির ঘটনার প্রেক্ষাপটে এই অনুরোধ জানানো হয়েছে। সেইসঙ্গে ওই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষী ব্যক্তিদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানিয়েছে সমিতি।  

গত মঙ্গলবার রাতে জুয়েলার্স সমিতির সভাপতি এনামুল হক খান ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই অনুরোধ ও দাবির কথা  জানানো হয়। এতে বলা হয়, ডাকাতির ঘটনায় নয়ারহাটের সাধারণ জুয়েলারি ব্যবসায়ীদের মধ্যে ভীতির পরিবেশ তৈরি হয়েছে।

গত রবিবার রাতে নয়ারহাট বাজারে একসঙ্গে ১৭টি সোনার দোকানে ডাকাতি হয়। এরপর গত সোমবার রাত ১১টার দিকে স্বর্ণ ব্যবসায়ী মনোরঞ্জন রাজবংশী একটি মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা ৪০ থেকে ৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, রবিবার রাত সাড়ে ১০টার মধ্যে নয়ারহাট বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে চলে যান। দিবাগত রাত দেড়টার দিকে স্পিডবোট ও ট্রলারে করে ৩০ থেকে ৪০ জনের একদল ডাকাত বাজারসংলগ্ন বংশী নদীর ঘাটে নামে। তারা রাইফেল, রামদা, হাইড্রোলিক কাটার, সেলাই রেঞ্জ ও রড নিয়ে বাজারে ঢোকে। বাজারের নিরাপত্তারক্ষীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত, পা ও মুখ বেঁধে একটি মুদি দোকানে ফেলে রাখে। পরে বাজারের ১৭টি স্বর্ণের দোকান থেকে ডাকাত দল আনুমানিক ১২৬ ভরি স্বর্ণালংকার, ৯১২ ভরি রুপার গয়নাসহ নগদ ১৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। সবমিলিয়ে আনুমানিক ১ কোটি ২ লাখ ৩২ হাজার টাকার অলংকারসহ নগদ টাকা লুট হয়।  

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

 

এই বিভাগের আরও খবর