শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:৪০

২০০ বছরের পুরনো মন্দির ভাঙনের মুখে

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

২০০ বছরের পুরনো মন্দির ভাঙনের মুখে
নদীতে বিলীন হওয়ার পথে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী দয়াময়ী মন্দির -বাংলাদেশ প্রতিদিন

নদীতে বিলীন হওয়ার পথে পটুয়াখালীর গলাচিপার ২০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী দয়াময়ী মন্দির। আগে সারা বছর এখানে সনাতন ধর্মে দর্শনার্থী-পুণ্যার্থীর সমাগম থাকলেও এখন শুধু মাঘী সপ্তমীর মেলায় মানুষের সমাগম ঘটে। দ্রুত ভাঙন ঠেকানো না গেলে পুরো মন্দির নদীতে চলে যাবে এমন শঙ্কা মন্দির কমিটিসহ স্থানীয়দের।

দয়াময়ী মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি বীমল সমদ্দার জানান, এই মন্দিরটি দক্ষিণাঞ্চলের জাগ্রত মন্দির। এর নামডাক ছিল দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও। এখানে একসময় ভারত থেকে ভক্তরা আসতেন। মানত করে পূজা অর্চনার পর পাঁঠা বলিদান করত। হাজার হাজার ভক্তের মিলন হতো মায়ের মন্দিরে। যেভাবেই হোক সরকারের কাছে মন্দিরটি রক্ষার দাবি জানাই।

গলাচিপার প্রবীণ সাংবাদিক শংকর লাল দাস জানান, ঐহিত্যবাহী এই মন্দিরটি প্রত্নত্ত্বতিক অধিদফতর তাদের তালিকাভুক্ত করলেও এটি রক্ষণাবেক্ষণে নেওয়া হয় হয়নি কোনো পদক্ষেপ। বহু আগে একবার তারা একটি সাইনবোর্ড সাটিয়ে গিয়েছে। তার পর আর কোন খোঁজ নেই। পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী খান মোহাম্মদ ওয়ালিউজ্জামান বলেন, আমি এখানে নতুন যোগদান করেছি। সরেজমিন অফিসের লোক পাঠিয়ে খোঁজখবর নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর