সোমবার, ১২ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

মানিকগঞ্জে পানির দামে দুধ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মানিকগঞ্জে পানির দামে দুধ

লকডাউনে চাহিদা কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন মানিকগঞ্জের দুগ্ধ উৎপাদনকারী খামারিরা। বাজারে ক্রেতা না থাকায় পানির  দামে দুধ বিক্রি হচ্ছে। শহর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে দুধ বিক্রি হলেও দুর্গম অঞ্চলের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা। প্রচুর দুধের জোগান থাকলেও ক্রেতার অভাবে প্রায় পানির দরেই বিক্রি হচ্ছে দুধ। বিশেষ করে ঘিওর, দৌলতপুর ও হরিরামপুর উপজেলার দুর্গম এলাকার বাজারগুলোতে দুধের দাম একেবারেই কম। লকডাউনের কারণে ঢাকার বাজারগুলোতে দুধের চাহিদা নেই। জেলার বিভিন্ন বাজার থেকে দুধ সংগ্রহ করে বেপারিরা দুধ ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করত। কিন্তু করোনার কারণে যানবানসহ বন্ধ রয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও দুধের চাহিদার বড় অংশ এসব বাজার থেকে জোগান দেওয়া হতো। বন্ধ রয়েছে সামাজিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠানসহ সব কর্মকা । ফলে বাধ্য হয়েই কম দামে দুধ বিক্রি করতে হচ্ছে। দৌলতপুরের সোমেজ বলেন, আমি দুধ বিক্রি করে সংসার চালাই কিন্তু এখন দুধের যে দাম তাতে গরুর খাবারের খরচ ওঠে না। দুধের বেপারি রমজান  আলী বলেন, বাজারে দুধের চাহিদা নেই, তাই দাম কম। আমার অতিরিক্ত কোনো লাভ নেই। বাজার দরের সঙ্গে মিল রেখে আমার ব্যবসা। প্রাণিসম্পদ অফিসের তথ্যমতে জেলায় ১ হাজার এক শ’টি গাভির খামার রয়েছে।

 গত অর্থবছরে ১৫ কোটি ৭০ লাখ লিটার দুধ উৎপাদিত হয়েছে। জেলায় চাহিদা রয়েছে ১২ কোটি ৭০ লাখ লিটার এবং ৩ কোটি ৭৭ লাখ লিটার দুধ মানিকগঞ্জ থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়।