শিরোনাম
২৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ২২:২৪

পাবনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকের বাড়িতে হামলা, আহত ৮

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকের বাড়িতে হামলা, আহত ৮

পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার দেবোত্তর ইউনিয়নে নৌকা সমর্থকদের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় নারীসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন। হামলায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ একজনকে আটক করেছে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার বিকেলে ইউনিয়নের মতিগাছা বাজারে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কে এম শাহীনের সমর্থক জাহিদ প্রামাণিকের বাড়িতে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাইমেন হোসেন চঞ্চলের সমর্থক নিফাজ উদ্দিন ও আফাই মোল্লার নেতৃত্বে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। এ সময়া তারা আনারসের সমর্থকদের নৌকার পক্ষে মাঠে নামতে বলে। জাহিদ তাদের কথায় রাজি না হওয়ায় লোহার রড ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করে সন্ত্রাসীরা। তাকে বাঁচাতে বাড়ির নারী সদস্যরা এগিয়ে এলে তাদেরও রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে তারা।  

একই কারণে সন্ত্রাসীরা পার্শ্ববর্তী ছগির প্রামাণিকের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ছগির প্রামাণিক ও তার পরিবারের সদস্যদের পিটিয়ে আহত করে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে গুরুত্বর আহত জাহিদ প্রামাণিক (৫৫) ও ছগির প্রামাণিক (৬৫) কে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

হামলার প্রতিবাদে সন্ধ্যায় এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে বিচার দাবি করেছেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কে এম শাহীন ও তার সমর্থকরা। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কেএম শাহীন অভিযোগ করে বলেন, কয়েকদিন আগে নির্বাচনী প্রচারনায় আমার কর্মী-সমর্থকদের উপর নৌকার প্রার্থী মোহাইমিন হোসেন চঞ্চলের নির্দেশে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে আমার কর্মী সেলিম হোসেনকে হত্যা করেছে। সে ঘটনাকে হার্ট এট্যাক বলে ধামাচাপা দেয়া হয়েছে। এখন শেষ মুহূর্তে বাড়ি বাড়ি গিয়ে আমার কর্মীদের হত্যা চেষ্টা করা হচ্ছে। আমি প্রশাসনের নিকট এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এদিকে, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হামলায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে। আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, শুক্রবার বিকেলে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে কয়েকজন আহত হবার কথা শুনেছি। গুরুত্বর আহত দুজনকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে এ ব্যপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। 
তবে, হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে নৌকার প্রার্থী মোহাইমিন হোসেন চঞ্চল বলেন, হামলার কোনো ঘটনা ঘটেনি। স্বতন্ত্র প্রার্থী মিথ্যা অভিযোগ করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের অপচেষ্টা করছেন।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর