৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৫:৫৩

বগুড়ায় দুই মাসে ৭ মণ গাঁজা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া:

বগুড়ায় দুই মাসে ৭ মণ গাঁজা উদ্ধার

বগুড়ায় গাঁজার বড়বড় চালান বেড়েই চলেছে। চালান বেড়ে যাওয়ার কারণে পুলিশের সতর্কতায় গত দুই মাসে প্রায় ৭ মণ গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। প্রায় দেড় কোটি টাকা মূল্যের গাঁজা উদ্ধারের সঙ্গে ১৯২টি মামলায় ২৪৭ জনকে গ্রেফতার করেছে জেলা পুলিশ বিভাগ। 

বগুড়া জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উত্তরবঙ্গের ১৬ জেলার প্রবেশদ্বার হওয়ায় বগুড়াকে ট্রানজিট রুট হিসেবে বেছে নিয়েছে মাদক কারবারীরা। বগুড়ার ওপর দিয়ে ঢাকা অভিমুখে যাওয়ার সময় সিংহভাগ গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে রংপুর, ঠাকুরগাও, পঞ্চগড়, নওগাঁ, নাটোর, গাইবান্ধা থেকে বগুড়ামুখী বাস বা ট্রাক থেকেও বিপুল পরিমান গাঁজার চালান উদ্ধার করেছে বগুড়া জেলা পুলিশ বিভাগ। 

জেলা পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তীর নির্দেশনায় জেলা শহরের মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে এই গাঁজাগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। মাদককারবারীরা কৌশলে কখনো পাথর বোঝাই ট্রাকে, কখনো প্রাইভেট কারে, কখনো সবজির ট্রাকে করে এই গাঁজাগুলো বহন করছিল। পুলিশের চেকপোস্টে সাঁড়াশি তল্লাশিকালে এই গাঁজাগুলো উদ্ধার হয়। চলতি বছরের জুলাই ও আগস্ট মাসে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ৭ মণ গাঁজা উদ্ধার করেছে। আর গাঁজা উদ্ধার সংক্রান্ত মামলা হয়েছে ১৯২ টি। এসব মামলায় আসামী করা হয়ছে ২৬৮ জনকে। এদের মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে ২৪৭ জন। জুলাই মাসে ১৩২ কেজি ৭০০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এ সংক্রান্ত ৯৪ টি মামলায় ১৩০ জন আসামীর মধ্যে ১২০ জনকে গ্রেফতার করে। চলতি বছরের আগস্ট মাসে অভিযান চালিয়ে ১০৭ কেজি ৪৭০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় মামলা দায়ের করা হয় ৩৪ টি। মামলাগুলোতে আসামি করা হয় ৪৯ জনকে। যাদের মধ্যে ৪৩ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। এছাড়াও একই মাসে পূর্বের ৬৪  মামলায় এজাহারভুক্ত ৮৯ জন আসামীর মধ্যে ৮৪ জনকে গ্রেফতার এবং আরও ৩৬ কেজি ১০৯ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়। আগস্ট মাসে সব মিলিয়ে ১৪৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া এই বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য টাকার অংকে দাঁড়ায় ১ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা। গত দুই মাসে জেলা পুলিশ মাদক উদ্ধার অভিযানে সফলতা দেখিয়েছে। সফলতার এই দুই মাসে জেলা পুলিশ মোট ২৭৬ কেজি ২৭৯ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে। যা মনের হিসাব করলে প্রায় ৭ মণে দাঁড়ায়। 

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ৩১ জুলাই নন্দীগ্রাম থানা পুলিশ বগুড়া-নাটোর মহাসড়কে পাথর বোঝাই ট্রাক থেকে ৫০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে। এ সময় চালক ও তার সহকারীকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তারা জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানায়, বিপুল পরিমাণ এই মাদকদ্রব্য লালমনিরহাটের বুড়িমারী থেকে পাবনায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। ২৮ আগস্ট শিবগঞ্জে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে ৬ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় ৩ জনকে গ্রেফতার করে। 

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী (এডমিন) হায়দার চৌধুরী জানান, গাঁজাসহ বিভিন্ন ধরনের বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধারে জেলা পুলিশ তৎপর রয়েছে। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী দেশে মাদক জিরো-টলারেন্সে নামিয়ে আনতে আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনী প্রতিনিয়ত মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দাবি মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে উদ্ধার করা হচ্ছে গাঁজা ও বিভিন্ন রকম মাদকদ্রব্য। একই সাথে গ্রেফতার হচ্ছে মাদক কারবারীরাও। মহাসড়কসহ মাদক পাওয়া যেতে পারে এমন সব জায়গায় পুলিশ বিভাগের অভিযান নিয়মিত চলবে ও চলছে। 

বিডি প্রতিদিন/এএম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর