২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ২১:৩০

নেত্রকোনায় স্বতন্ত্র হিসেবে লড়বেন বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনায় স্বতন্ত্র হিসেবে লড়বেন বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা

নেত্রকোনা-১ (দুর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে ফর্ম কিনেছিলেন ২১ জন নেতাকর্মী। তাদের মধ্যে দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে নৌকার মনোনয় চেয়েছিলেন জান্নাতুল ফেরদৌস আরা ঝুমা তালুকদার। তিনি সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা জালাল তালুকদারে মেয়ে। অবশেষে রবিবার দলীয় মনোনয়ন ঘোষণায় সাবেক এমপি মোশতাক আহমেদ রুহীকে দেয়া হয়। আজ সোমবার দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে নেত্রকোনা-১ (কলমাকান্দা-দুর্গাপুর) আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন সদ্য পদত্যাগকারী দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঝুমা তালুকদার।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুল ইসলাম প্রিন্স। নেত্রকোনা ৪ (মদন-মোহনগঞ্জ-খালিয়াজুরী) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সোমবার জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছ থেকে মনোনয়ন পত্র কিনেছেন ৯০-এর গণঅভ্যুত্থানের নেতা শফি আহমেদ। 

এদিকে নেত্রকোনা ২ (সদর-বারহাট্টা) আসনেও সাবেক সংসদ সদস্য উপ ক্রীড়া ও যুব মন্ত্রী আরিফ খান জয়ের স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। এ আসনটিতে আরও শোনা যাচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক শামছুর রহমান ওরফে ভিপি লিটনের নাম।

তবে একাধিক নাম শোনা যাচ্ছে নেত্রকোনা-৩ (কেন্দুয়া-আটপাড়) আসনে। সেখান থেকে এম এ মতিন, সাবেক এমপি ইফতেখার উদ্দিন তারুকদার পিন্টু ও সাবেক এমপি মঞ্জুর কাদের কোরাইশী মনোনয়ন কিনতে পারেন বলে জানা গেছে। নেত্রকোনা ৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী শফি আহমেদ জানান, তিনি ২০১৮ সনেও মনোনয়ন পত্র জমা দেন। কিন্তু তার জনপ্রিয়তার বিষয়টি নিশ্চিত থাকায় কোন রকমে মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাইয়ের নামে বাতিল করা হয়। এবারো তিনি এই আশংকা করছেন। তিনি নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা রেখে এবার সকলকে এই বিষয়টি অবগত করেন।

 

বিডি প্রতিদিন/নাজমুল

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর