শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২৩:০৮

মার্কিন সেনা প্রত্যাহার

শান্তি ফিরে আসুক আফগানিস্তানে

Google News

গত বছর তালেবানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী ৩১ আগস্ট রাত ১১টা ৫৯ মিনিটে শেষ মার্কিন সেনাটি আফগানিস্তান ছেড়ে চলে গেছে। এর ফলে দীর্ঘ ২০ বছরের ক্লান্তিকর যুদ্ধ থেকে রেহাই পেল যুক্তরাষ্ট্র। এর বিপরীতে আফগানিস্তানের জনগণ মুক্ত হলো বিদেশি আধিপত্য থেকে। আফগান যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র পরাজিত হয়েছে এমন সস্তা মূল্যায়ন শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহল থেকে। প্রকৃত অর্থে যুক্তরাষ্ট্রের আফগানিস্তান মিশন সফল না ব্যর্থ তা মূল্যায়নের সময় এখনো আসেনি। এজন্য আরও কিছুকাল এমনকি কয়েক বছর অপেক্ষা করতে হবে। তবে আমরা চাই দক্ষিণ এশীয় দেশ হিসেবে আফগানিস্তানে শান্তি ফিরে আসুক। দুনিয়ার একমাত্র পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের আফগানিস্তান দখল ছিল যে কোনো বিচারে একটি অনৈতিক ও ভুল সিদ্ধান্ত। তবে ভুল হোক আর ঠিক- এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল আফগান জনগণ নয় বরং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তথা মার্কিন জনগণের স্বার্থ রক্ষার নামে। সোজা কথায়, আফগানিস্তান থেকে মার্কিনবিরোধী শক্তি উৎখাত করতে। ২০ বছরের ক্লান্তিকর লড়াইয়ের সমাপ্তি এসেছে তালেবানের সঙ্গে আপস চুক্তির মাধ্যমে। এর ফলে যে তালেবানকে হটিয়ে মার্কিনিরা আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করেছিল তাদের হাতেই কার্যত হস্তান্তরিত হয়েছে কাবুলের ক্ষমতা। সে দেশের নির্বাচিত সরকার এবং সেনাবাহিনী তালেবান বাহিনীকে বাধা দেওয়ার চেষ্টাও করেনি। তবে ২০ বছর আগের তালেবান এবং এখনকার তালেবান যে এক নয়, তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে তাদের ভাষ্যে। আফগানিস্তানের নতুন আমির-ওমরারা যে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আপস করে চলবেন তা তাদের বক্তব্যেও স্পষ্ট হয়েছে। বিশ্বপরিসরে মার্কিন স্বার্থের বড় চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করেছে যে আইএস জঙ্গিরা তালেবানরা তাদের বিরুদ্ধে সুস্পষ্ট অবস্থানও নিয়েছে তা স্পষ্ট। বলা যায়, এ কারণে নতুন তালেবানের উত্থান চূড়ান্ত বিচারে যুক্তরাষ্ট্রের জয় বলেও বিবেচিত হতে পারে।