শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:৪৬

নবম-দশম শ্রেণির জীববিজ্ঞান

সুকুমার মন্ডল, সিনিয়র শিক্ষক

নবম-দশম শ্রেণির জীববিজ্ঞান

সৃজনশীল প্রশ্ন

পঞ্চম অধ্যায়

খাদ্য, পুষ্টি এবং পরিপাক উদ্দীপক অ-মাছ, মাংস, ডিম, দুধ ই-চাল, আটা, আলু, ফলের রস ঈ-ঘি, তেল, মাখন উ-বিভিন্ন প্রকার ভিটামিনযুক্ত খাবার

ক) ক্লোরোসিস কী?

খ) গ্যাস্ট্রিক আলসার বলতে কী বোঝো?

গ) উদ্দীপকের খাদ্যগুলো থেকে একটি আদর্শ খাদ্য পিরামিড অঙ্কন করো।

ঘ) উদ্দীপকের অ, ই, ঈ ও উ এর কোনটিতে পুষ্টিমূল্য বেশি এবং কেন? আলোচনা করো।

উত্তর :

ক) নাইট্রোজেনের অভাবে উদ্ভিদের পাতা হলুদ হয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াই হলো ক্লোরোসিস।

খ) আলসার হলো পাকস্থলী বা অন্ত্রের প্রদাহ বা ক্ষত। দীর্ঘদিন ধরে খাদ্য গ্রহণে অনিয়ম হলে পাকস্থলীতে অম্লের আধিক্য ঘটে। অনেক দিন ধরে এ অবস্থা চলতে থাকলে পাকস্থলী বা অন্ত্রে ক্ষতের সৃষ্টি হয়, তখন একে গ্যাস্ট্রিক আলসার বলে। নিয়মিত ও সময়মতো খাদ্য গ্রহণ ও উত্তেজক খাবার বর্জন করলে এ রোগ প্রতিরোধ সম্ভব।

গ) উদ্দীপকে উল্লিখিত তথ্য থেকে একটি আদর্শ পিরামিড নিচে অঙ্গন করা হলো-

ঘ) উদ্দীপকে উল্লিখিত ছকে A, B, C ও D-তে যথাক্রমে আমিষ, শর্করা, স্নেহ জাতীয় ও ভিটামিন জাতীয় খাদ্য উল্লেখ করা হয়েছে। ছকে বর্ণিত খাদ্যোপাদানগুলোর প্রত্যেকটি শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। তবুু গুণগত মান বিশ্লেষণে অ দলের খাদ্যের পুষ্টিমূল্য বেশি। নিচে তা কারণসহ ব্যাখ্যা করা হলো A দলে খাদ্যগুলো হলো মাছ, মাংস, ডিম ও দুধ, যা প্রাণিজ আমিষজাতীয় খাদ্য; আমিষ দেহে পরিপাক হওয়ার পর অ্যামাইনো এসিডে পরিণত হয়। অ্যামাইনো এসিড হচ্ছে আমিষ গঠনের একক। আমিষের পরিচয় অ্যামাইনো এসিড দিয়ে। আমাদের দেহে ২০ ধরনের অ্যামাইনো এসিড রয়েছে, যার মধ্যে আটটি দেহ সংশ্লেষ করতে পারে না। এ আটটি অ্যামাইনো এসিড দেহের জন্য খুবই প্রয়োজন। তাই এদের অত্যাবশ্যকীয় অ্যামাইনো এসিড বলে। প্রাণিজ আমিষে অর্থাৎ মাছ, মাংস, ডিম ও দুধে অত্যাবশ্যকীয় অ্যামাইনো এসিড বেশি পাওয়া যায়। তা ছাড়া দেহ কোষের গঠনে বেশির ভাগই আমিষযুক্ত।

দেহের অস্থি, পেশি ইত্যাদি আমিষ দিয়ে তৈরি। কোষের গঠন ও কার্যাবলি আমিষের সাহায্যে নিয়ন্ত্রিত হয়।

উপরোক্ত আলোচনা থেকে প্রতীয়মান হয় যে অ দলের খাদ্যের পুষ্টিমূল্য বেশি।

 


আপনার মন্তব্য