Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : সোমবার, ৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৫৪

শোক ও শ্রদ্ধায় টেলিসামাদের বিদায়

শোবিজ প্রতিবেদক

শোক ও শ্রদ্ধায় টেলিসামাদের বিদায়

সকাল থেকেই এফডিসির ভিতর-বাইরে শোকাহত মানুষের ভিড়। শোকবিহ্বল মানুষ তাদের প্রিয় কৌতুক অভিনেতা সদ্যপ্রয়াত টেলিসামাদকে একনজর দেখার জন্য অধীর হয়ে আছেন। অনেকে চোখ মুছে অশ্রু সংবরণের ব্যর্থ চেষ্টা করছেন। সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যেই জনপ্রিয় এই অভিনেতাকে বহনকারী শব গাড়িটি এফডিসিতে এসে প্রবেশ করলে। শুরু হলো কান্নার রোল। জহির রায়হান কালার ল্যাবের সামনে স্থাপিত শবাধারে মরদেহ তোলা হলো। শোকাহত সতীর্থ আর দর্শক-ভক্তরা সুশৃঙ্খলভাবে এগিয়ে এসে ফুলেল শ্রদ্ধায় সিক্ত করলেন প্রিয় মানুষটিকে। তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, তথ্য সচিব আবদুল মালেক, এফডিসির এমডি লক্ষণ চন্দ্র দেবনাথ, পরিচালক সমিতির সভাপতি ও মহাসচিব গুলজার ও বদিউল আলম খোকন, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, অভিনেতা-নির্মাতা ফারুক, আলমগীর, আলীরাজ, সম্রাট, ইলিয়াস কাঞ্চন, ডি এ তায়েব, অমিত হাসান, খসরু, ডায়মন্ড, শাহ আলম কিরণ, অঞ্জনা, নাসরিন, সাদিক সিদ্দিকীসহ তারকা-কলাকুশলী নির্মাতারা একে একে ফুল আর চোখের জলে শেষ শ্রদ্ধা জানালেন প্রয়াত টেলিসামাদকে। ষাটের দর্শকের শুরুতে টেলিসামাদ যখন আর্ট কলেজের ছাত্র তখন থেকেই অভিনয়ের নেশায় ছুটে আসতেন এফডিসিতে। গেটে এসে দারোয়ান কাদেরের তাড়াও খেয়েছেন বহুবার। কিন্তু তার অটল প্রতিজ্ঞা একসময় তাকে জনপ্রিয় অভিনেতার আসনে বসিয়ে দেয়। তারপর প্রায় চার দশক কেটে গেছে তার এই দ্বিতীয় আবাসস্থল এফডিসিতে। আজ নিজের ঘর থেকে নিথর দেহে বিদায় নিলেন তিনি। জানাজা শেষে তাকে বহন করা শব গাড়িটি সবাইকে কাঁদিয়ে ছুটে চলল মুন্সীগঞ্জের বিক্রমপুরে। বাদ জোহর সেখানে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে অন্তিম শয়ানে শায়িত হলেন হাসির রাজা প্রয়াত টেলিসামাদ।


আপনার মন্তব্য