শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২২:১২

ইন্টারভিউ - শাবনূর

অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে যে কোনো শাস্তিই মেনে নেব

অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে যে কোনো শাস্তিই মেনে নেব

নব্বইয়ের দন্ডাকে বাংলা চলচ্চিত্রের সাড়াজাগানো জুটি সালমান শাহ ও শাবনূর। এ জুটি উপহার দিয়েছেন দর্ন্ডাকনন্দিত ১৪টি ছবি। একসঙ্গে কাজ করার সুবাদে এই জুটির মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে এই সম্পর্ক নিয়ে চলেছে অনেক মুখরোচক আলোচনা। সম্প্রতি প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান শাহর আত্মহত্যা নিয়ে ব্রিফ করেছে পিবিআই। ব্রিফিংয়ে সালমান হত্যায় ঘুরে-ফিরে নায়িকা শাবনূরের প্রসঙ্গ আসে। যে বিষয়টি নিয়ে বিব্রত নায়িকা শাবনূর। সালমান শাহ ও নানা প্রসঙ্গে তার সঙ্গে কথা বলেছেন- আলাউদ্দীন মাজিদ পান্থ আফজাল

 

সালমান আত্মহত্যা ইস্যুতে পিবিআই তদন্তে আপনার নাম জড়ানো হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে আপনার বক্তব্য কি?

হঠাৎ করে আমার দিকে কেন কামান তাক করা হলো! তার মা (নীলা চৌধুরী) তো অনেকবারই বলেছেন, আমার ছেলের সঙ্গে শাবনূরের ভাই-বোনের সম্পর্ক। তাছাড়া সালমানের পরিবারের কেউ কখনো এ নিয়ে আমার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগই আনেননি। তবে কেন আমাকে এই ইস্যুতে জড়ানো হচ্ছে? এ প্রশ্ন আমারও।

 

সালমান আত্মহত্যার আগের দিন সামিরা আপনাদের ‘প্রেম-পিয়াসী’র ডাবিং সেটে ঘনিষ্ঠভাবে দেখেছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে...

এটি একেবারেই বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। কারণ, ওই ডাবিং ফ্লোরে আমি আর সালমান কিন্তু একা ছিলাম না; সেখানে সিনেমা সংশ্লিষ্ট অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। তো সে অবস্থায় এত মানুষের সামনে কি ঘনিষ্ঠভাবে থাকা সম্ভব?

 

তাহলে সামিরা সেখান থেকে রাগ করে বেরিয়ে গেলেন কেন?

এটা তাদের ব্যাপার! তবে দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যকার সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল না। নানা কারণে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলছিল। এমনকি বিয়ের দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও তাদের ঘরে কোনো সন্তান আসেনি। এ বিষয়টি নিয়ে সালমান-সামিরার মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। এমনকি সালমান বাইরে থেকে একটি সন্তান দত্তকও নিতে চেয়েছিলেন বলে শুনেছিলাম। সালমান ওর ব্যক্তিগত অনেক বিষয়ই আমার সঙ্গে শেয়ার করতেন।

 

আপনার কাছে যদি এতকিছুই ব্যক্তিগত বিষয় শেয়ার করতেন, তাহলে তো প্রশ্ন থাকতেই পারে যে, আপনার সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল?

অবশ্যই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল, আমি কিন্তু এটা অস্বীকার করছি না। কিন্তু সে সম্পর্কটা ছিল ভাই-বোনের। সালমানের কোনো বোন ছিল না বলে তিনি আমাকে বলতেন, ‘তুই আমার ছোট বোন’। এ কথা তার পরিবারের সবাই জানতেন। এমনকি সামিরারও অজানা নয়। সালমান আমাকে আদর করে ‘পিচ্চি’ বলে ডাকতেন।

 

তাহলে সামিরার অনুপস্থিতিতে সালমানের বাসায় আপনার রাত কাটানোর অভিযোগ কি মিথ্যা?

অবশ্যই মিথ্যা! সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা। কেউ যদি প্রমাণ দিতে পারে যে, সালমানের সঙ্গে তার বাসায় রাত কাটিয়েছিলাম তাহলে আমি যে কোনো শাস্তি মেনে নেব। কারণ, সেখানে গার্ড সবসময়ই থাকতেন। আছে রেজিস্ট্রি বুক। সেই রেজিস্ট্রি বুকে কি আমার নাম লিপিবদ্ধ রয়েছে? বা কেউ আমাকে দেখেছেন বাসায় উঠতে?

 

আত্মহত্যার দিন আপনি একাধিকবার সালমানকে ফোন দিয়েছিলেন। রাগ করে সালমান আপনাকে ফোন দিতে বারণ করেছিলেন। এটাও কি মিথ্যা?

সবই মিথ্যা! তখনকার কললিস্ট চেক করলেই তো প্রমাণ পাওয়া যাবে, আমি ফোন দিয়েছিলাম কিনা। আমি তো বলব, আমি একটি গভীর ষড়যন্ত্রের শিকার। এ নিয়ে আর বেশি কিছু বলতে চাই না।

 

আচ্ছা, তবে এ বিষয়ে আপনি কি কোনো আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন?

অবশ্যই নেব। মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহে অথবা এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে দেশে আসছি। তখন সবার সঙ্গে আলাপ করে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।


আপনার মন্তব্য