শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৩১ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:২৩

ওয়েব সিরিজে জনপ্রিয় তাঁরা

ওয়েব সিরিজে জনপ্রিয় তাঁরা

করোনায় অস্থির বিশ্ব। প্রেক্ষাগৃহ-টিভি চ্যানেলের প্রতি অনাগ্রহের কারণে দর্শক ঝুঁকছে ওটিটি প্ল্যাটফরমসহ বিভিন্ন অনলাইনের দিকে। সিনেমা এবং ওয়েব সিরিজ মুক্তি পাচ্ছে এখন অনলাইনেই। ওয়েব সিরিজে অভিনয় করে রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে যাচ্ছেন নতুন-পুরনো অনেক অভিনয় শিল্পী। সেসব কিছু প্রিয়মুখ নিয়ে লিখেছেন- পান্থ আফজাল

 

দেশি ওয়েব সিরিজ

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত হয় ‘আগস্ট ১৪’। ক্রাইম থ্রিলার ঘরানার এ ওয়েব সিরিজটি নির্মাণ করেন শিহাব শাহীন। গল্পটি এগিয়েছে ঐশীকে নিয়ে। যে ছিল পুলিশ কর্মকর্তা বাবার আদরের মেয়ে। মাদক সেবনকারী ঐশী এক সময় বেপরোয়া জীবনযাপন, অনিয়ন্ত্রিত প্রেম ও মাদকসেবীদের পাল্লায় পড়ে নষ্ট হয়ে যায়। বাবা-মার থেকে স্বাধীনতা না পেয়ে সে বোর হয়ে জীবনে বর্বর ও নৃশংসতা বেছে নেয়। এই আলোচিত ঐশী চরিত্রটি করে সবার কাছে প্রিয়মুখ হয়ে ওঠেন অভিনেত্রী তাসনুভা তিশা। মূল চরিত্রে তাসনুভা তিশার দুর্দান্ত অভিনয় দেখে অনেকেই ভালো লাগার কথা জানান সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও তিনি এর আগে অনেক নাটক, টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন। তবে এই ওয়েব সিরিজ তাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়। ‘তাকদির’র মন্টু অর্থাৎ সোহেল মন্ডল। সৈয়দ আহমেদ শাওকী ও সালেহ সোবহান অনীম নির্মিত ওয়েব সিরিজ ‘তাকদির’র মাধ্যমে তিনি তাঁর অভিনয়ের জাত চিনিয়েছেন। পর্দায় চঞ্চল চৌধুরীর সঙ্গে পুরোটা সময় সমানতালে অভিনয় করেছেন। সোহেল রানা এই সিরিজের এক্স-ফ্যাক্টর। এই অভিনেতা মঞ্চ, চলচ্চিত্র, বিজ্ঞাপন আর ওটিটি প্ল্যাটফরম মিলিয়ে অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত দীর্ঘ ১৩ বছর! ২০০৯ থেকে এ পর্যন্ত প্রাচ্যনাট থিয়েটারের হয়ে কাজ করেছেন অসংখ্য প্রযোজনায়। অভিনয় করেছেন ‘মায়ার জঞ্জাল’, ‘আয়নাবাজি’, ‘হাওয়া’, ‘আন্ডার কনস্ট্রাকশন’, মুসাফির, ‘রংধনু’ চলচ্চিত্রসহ ‘শ্যাওলা’ ওয়েব সিরিজে।

 

কলকাতা বলিউড ওয়েব সিরিজ

কলকাতায় ওয়েব সিরিজ করে আলোচনায় এসেছেন ভোজপুরী জনপ্রিয় নায়িকা বাঙালি মেয়ে মোনালিসা। হ্যালো নামের ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন প্রিয়াঙ্কা সরকার। ‘পাতাল লোক’ ওয়েব সিরিজের প্রায় সবাই দর্শকদের কাছে পরিচিত। এই ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে দর্শকদের কাছে জয়দীপ, গুল পানাং, নিরাজ কবি,  ঈসাক সিং, নিহারিকা, অভিষেক ব্যানার্জিসহ অনেকেই সুপরিচিত হন। আরেকটি জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ ‘বুলবুল’। এটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তৃপ্তি দিমরি। অভিনয় করে আরও মুগ্ধ করেন অবিনাশ তিওয়ারী। ‘জিল’ এ পঙ্কজ কাপুর, অভয় দেওলের মতো অভিনেতা পর্দায় আলোড়ন তোলেন। সঙ্গে আছেন পীযূষ মিশ্র ও রাজেশ শর্মাদের মতো অভিনেতা। ‘ভি’ মুক্তি পায় অ্যামাজান প্রাইমে। ন্যাচারাল স্টার ন্যানি ও সুধির বাবুর অভিনয় মুগ্ধ করে দর্শককে। ‘আটকান ছাটকান’ এ গুড্ডু নামে তরুণ লাইদিয়ান। তার অভিনয় ছিল অসাধারণ। ভারতীয় ওয়েব সিরিজগুলোর মধ্যে সব থেকে বেশি আলোচিত নাম ‘ঝধপৎবফ এধসবং’। সিরিজটি দুটি সিজনে মুক্তি পায়। এটিতে অভিনয় করে জনপ্রিয় হয়েছেন পঙ্কজ ত্রিপাঠী ও সুরবীন চাওলা। নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিক ও সাইফ আলী খানের সঙ্গে দাপিয়ে অভিনয় করেছেন তারা। ‘লুডু’ ফিল্মে পঙ্কজের অভিনয় চোখে পড়ার মতো ছিল। ওয়েব সিরিজ ‘স্পেশাল অপস’ এ অভিনয় করে নতুন করে আলোচনায় আসেন সানা খান, কে কে মেনন, সাজ্জাদ ও সায়ামী খের। ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি এবং সিক্রেট সার্ভিস নিয়ে এই মুভি সিরিজ। অসুরে অভিনয় করেছেন রিদ্ধি ডোগরা, বরুণ সেবতি, বিশেষ বনসাল। আরশাদ ওয়ারসীর সঙ্গে তাল মিলিয়ে অভিনয় করে গেছেন তাঁরা। মির্জাপুরের কাহিনি কিছুটা টিপিক্যাল। এটিতে অভিনয় করেন পঙ্কজ ত্রিপাঠী, আলী ফজল, দিবেন্দ্যু, রাসিকা দুগাল। ‘দ্যা ফ্যামিলি ম্যান’-এটিও ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি এবং সিক্রেট সার্ভিসকে কেন্দ্র করে বানানো। এটিতে দাপিয়ে অভিনয় করেছেন প্রিয়ামণি, শ্রেয়া ধনন্তরি ও সামান্তা। ব্রেথে অভিনয় করে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন অমিত সাধ, স্বপ্না পাব্বি, হুশিকেশ যোশি। সঙ্গে ছিলেন আর মাধবন। দিল্লি ক্রাইমে অভিনয় করেছেন  শেফালী শাহ, রিচি মেহতা, রাসিকা দুগাল ও অশ্বীনি। এই ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন শামা শিকান্দার। ভারতের আরেকটি জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ ‘পিচারস’। এটিতে অভিনয় করেছেন নবীন কাসতুরিয়া, জিতেন্দ্র কুমার, অরুণাভ কুমার, অভয় মহাজন। ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে জনপ্রিয় পাওয়ার কাতারে আরও রয়েছেন দর্শনা বণিক ও রিচা চাড্ডা। পুনর্মিলন এ অভিনয় করেছেন স্বপ্না পাব্বী, অনুজ সত্যদেব, শ্রিয়া ধনতন্ত্রী, এবং বীর রাজন্ত সিং। বড়কোর্ট এ অভিনয় করেছেন ভুবন বাঁ। অপূর্ণাঙ্গ ওয়েব সিরিজে ওমকার কুলকার্নি, রাশ্মী আগদিকার, চিন্ময় চন্দ্রশূশু এবং বিশেশ তিওয়ারী। অগ্নিতে ঋতিক সাহুর, তানিয়া মানিকতলা, শিবম কাকার, সুনাক্ষী গ্রোভার, দীপেশ সুমিত্রা জগদীশ। মৃত/জীবিত ওয়েব সিরিজে রাজকুমার রাও-এর সঙ্গে সঞ্জয় গুরুবাকানী, সুরেন্দ্র রাজন। পারমাণবিক রুমমেট এ সুমিত ব্যাস, নিধি সিং, নিধি বিশট ও দীপক মিশ্র। গান্ধী ব্যাট-এ রোহিত চৌধুরী, অনন্ত যোশী, নিতা শেঠি।  মেন্টালহুডে রয়েছেন তিলোত্তমা সোম, শিল্পা শুক্লা, শ্রুতি শেঠ, সন্ধ্যা মৃদুল। ‘নকশালবাড়ি’ সিরিজের মূল চরিত্রে আছেন রাজীব খান্ডেলওয়ালত। ওয়েব সিরিজ নকশালবাড়ি। এই সিরিজে আরও রয়েছেন টিনা দত্ত, শ্রীজিতা দে ও সত্যদীপ মিশ্র। বাহুবলী : বিফোর দ্য বিগিনিং সিরিজে বিভিন্ন চরিত্রে দেখা যাবে ম্রুনাল ঠাকুর, রাহুল বোস, অতুল কুলকার্নি, স্মরণ সাহুসহ অনেকে। অ্যা সুইটেবল বয় সিরিজে অভিনয় করেছেন ঈশান খট্টর, টাবু, রসিকা দুগ্গল, রাম কাপুর, নমিত দাস, বিজয় ভার্মা, সাহানা গোস্বামী প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য