সোমবার, ১ এপ্রিল, ২০২৪ ০০:০০ টা

ছয় শতাধিক নাটকের ঈদ

ছয় শতাধিক নাটকের ঈদ

আসন্ন ঈদ যেন পরিণত হতে যাচ্ছে নাটকের ঈদে। এবার ঈদে প্রচার হবে ছয় শতাধিক নাটক। যা এর আগে কখনই হয়নি বলে জানান, নাট্যনির্মাতারা। টেলিভিশন চ্যানেল, ইউটিউব চ্যানেল ও ওটিটি প্ল্যাটফরমে এসব নাটক প্রচার হতে যাচ্ছে। ঈদের নাটকের নানাদিক তুলে ধরেছেন - আলাউদ্দীন মাজিদ

 

টিভিতে নাটক কমেছে

ঈদে টিভি চ্যানেলগুলোতে শত শত নাটক প্রচার হয়ে আসছে বেসরকারি চ্যানেল চালু হওয়ার পর থেকেই। এবার টেলিভিশন চ্যানেলে বাজেট বেড়ে যাওয়ায় চ্যানেলগুলোতে কমেছে নাটকের সংখ্যা। বাজেট বাড়ার কারণ প্রসঙ্গে টিভি চ্যানেলগুলো বলছে, ঈদের নাটকে স্বাভাবিকভাবেই বাজেট বেড়ে যায়। ঈদ যতই ঘনিয়ে আসে, ততই চিত্রগ্রাহক, রূপসজ্জাকারী, লাইট ক্রু, প্রোডাকশন বয় থেকে শুরু করে সবাই পারিশ্রমিক বেশি দাবি করেন। তাই এই সময়টাতে বাজেট বৃদ্ধি করতে বাধ্য হতে হয়।

 

ইউটিউবে কেন বেশি

ইউটিউব নাটকের বাজেট টিভি নাটকের চেয়ে বেশি বলে জানালেন কয়েকজন নির্মাতা। দেখা যায়, কোনো ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রিপশন এক-দুই মিলিয়ন হলেও প্রযোজকরা নাটকপ্রতি বাজেট দিচ্ছেন এক-দুই লাখ টাকা বেশি। কখনো আরও বেশি। অন্যদিক পাঁচ মিলিয়নের বেশি সাবস্ক্রিপশন নিয়েও বেশ কিছু টেলিভিশন চ্যানেল বাজেটে পিছিয়ে। তবে এ প্রসঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করলেন বাংলাভিশনের অনুষ্ঠানপ্রধান তারেক আখন্দ। তিনি বলেন, ‘এটা এক সময় ছিল। কারণ, হুট করেই ইউটিউবের নাটকগুলো দ্বিগুণ বাজেট দিয়ে নাটক নির্মাণ শুরু করে। তখন আমরা মানিয়ে নিতে পারিনি। বর্তমানে আমাদের একই দামে নাটক নিতে হয়। আমাদের নাটকগুলোও কিন্তু ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ে থাকছে। আমাদের এবার ঈদে ৩৭টি একক নাটক ও ৭টি টেলিফিল্ম যাবে। দর্শক ধরে রাখতে কমবেশি ব্যালান্স করেই বাজেট দিতে হচ্ছে।’

 

নতুন শিল্পীই বেশি

এবারের নাটকগুলোতে নতুন শিল্পীই বেশি কাজ করেছেন। এর আগে ছোট পর্দার ঈদ নাটক মানে জাহিদ হাসান, মোশররফ করিম, চঞ্চল চৌধুরী, অপূর্ব, নিশো, মেহজাবীন প্রমুখের আধিক্য দেখা যেত। এবার  ওটিটি ও সিনেমায় বেশি কাজ করেছেন মোশাররফ করিম। তেমনি টিভি নাটকে চঞ্চল চৌধুরীকেও তেমন একটা দেখা যাবে না। তিনি ঈদের জন্য ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকিতে ‘লাস্ট ডিফেন্ডারস অব মনোগামী’ ও হইচইয়ে ‘রুমি’তে কাজ করেছেন। অপূর্ব ও আফরান নিশোরও ঈদ নাটক নিয়ে ব্যস্ততা নেই। অপূর্বর কথায় তিনি বলেন, ‘চেষ্টা করছেন বড় পরিসরে ভালো কিছু উপহার দেওয়ার। একটু সময় নিয়ে ভালো গল্প এবং বড় আয়োজনে দর্শকদের নতুন কিছু উপহার দেওয়ার চেষ্টা করছি। অযথা কাজের সংখ্যা বাড়িয়ে লাভ কী? সংখ্যা নয়, কয়টি ভালো কাজ করছি আমার কাছে সেটিই মুখ্য।’ গত দুই বছর নাটক থেকে দূরে মেহজাবীন চৌধুরী। ঈদেও দেখা যায়নি তার নতুন নাটক। অবশ্য মাঝে ‘অনন্যা’ নামে একটি মাত্র নাটকে অভিনয় করেছিলেন তিনি। দুই বছর পর ঈদে নতুন নাটকে দেখা যাবে তাকে। মেহজাবীন বলেন, সব ঠিক থাকলে ঈদে চ্যানেল আইয়ের একটি নাটকে আমাকে দর্শকরা দেখতে পাবেন। এবার এ সময়ের জোভান আহমেদ, নিলয় আলমগীর, ইরফান সাজ্জাদ, খায়রুল বাসার, মুশফিক আর ফারহান, তৌসিফ মাহবুব, আরশ খান, তানজিন তিশা, সাফা কবির, সাবিলা নূর, সালহা খানম নাদিয়া, হিমি, সামিরা খান মাহি, কেয়া পায়েল, তটিনী, নীহা, সাদিয়া আয়মান, তানিয়া বৃষ্টি প্রমুখকে ঈদ নাটকে বেশি দেখা যাবে।

 

প্রেম ও পারিবারিক গল্পই বেশি

গত কয়েক বছরের মতো এবারও ঈদ নাটকে প্রেম ও পরিবারকেন্দ্রিক গল্পের প্রাধান্যই বেশি দেখা যাবে। নির্মাতাদের মধ্যে হাসান রেজাউল, শিহাব শাহীন, মিজানুর রহমান আরিয়ান, তপু খান, ভিকি জাহেদ, মাবরুর রশীদ বান্নাহ, সহীদ উন নবী, রাফাত রিংকু, আবু হায়াত মাহমুদ, অনন্য ইমন, সানজিদ খান প্রিন্স, সুব্রত সঞ্জীব, মাইদুল রাকিবরা হাজির হবেন নাটকের ডালা নিয়ে।

সর্বশেষ খবর